মহম্মদ সেলিমের খাদ্যাভ্যাস নিয়ে ফেসবুক পোস্ট, বিজেপির বিরুদ্ধে লালবাজার সাইবার সেলে অভিযোগ সিপিএম নেতার

মাংস খাওয়া নিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় মিথ্যা খবর ছড়ানোর অভিযোগে লালবাজারের সাইবার সেলে গেলেন সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিম। কয়েক বছর আগে সিপিএম পলিটব্যুরো সদস্য সেলিম আমেরিকা গিয়ে মাংস খাওয়া নিয়ে একটি সাম্প্রদায়িক বিতর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন, এই দাবি করে সম্প্রতি একটি ফেসবুক পোস্ট ভাইরাল হয়। সেই পোস্টের তথ্যের সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেই পুলিশে অভিযোগ জানিয়েছেন সেলিম। ট্যুইটারে তিনি একথা বলার পাশাপাশি জানিয়েছেন, ফেসবুক কর্তৃপক্ষের কাছেও এই পোস্টটি সম্পর্কে রিপোর্ট করা হয়েছে।
ঘটনার সূত্রপাত স্বাধীনতা দিবসের দিন মধ্যরাতে। সেদিন ফেসবুকে জনৈক ব্যক্তির প্রোফাইল থেকে একটি পোস্ট করে দাবি করা হয়, কয়েক বছর আগে আমেরিকায় গিয়ে মহম্মদ সেলিম মহানন্দে গো-মাংস খেয়েছেন কিন্তু শুয়োরের মাংস পরিবেশন করতেই তিনি তা খেতে প্রবল আপত্তি প্রকাশ করে খাওয়ার টেবিল উল্টে ফেলেছেন। এখানেই শেষ নয়, সিপিএমের প্রাক্তন সাংসদ নাকি এই ঘটনায় এতটাই রেগে যান যে, তৎক্ষণাৎ তিনি অন্য কোনও পরিচিতের বাড়ি গিয়ে ওঠেন। এবং গোটাটাই নাকি সিপিএমের পলিটব্যুরো সদস্য করেছেন ধর্ম রক্ষার্থে। এমনই দাবি করা হয়েছে জনৈক ব্যক্তির ফেসবুক পোস্টে। সেই পোস্টে আরও দাবি করা হয়েছে, এই ঘটনার পরই নাকি সেলিমকে অতিথি হিসেবে আপ্যায়ন করা পরিবারটি বামপন্থী মানসিকতা ত্যাগ করে হিন্দুত্ববাদীদের মোটা টাকা চাঁদা দেওয়া আরম্ভ করেছেন।
এই পোস্টটিতে অবশ্য কোনও সূত্রের উল্লেখ করা হয়নি। লেখক কোথা থেকে এই তথ্য পেলেন, তাও জানা যায় না। তাই স্বভাবতই পোস্টের সত্যতা নিয়েই প্রশ্ন উঠে গিয়েছে। সিপিএম গোটা ঘটনার নেপথ্যে বিজেপির হাত দেখতে পাচ্ছে। সেলিমের দাবি, এভাবেই ধর্মকে ঢাল করে মানুষের মধ্যে ঘৃণা ছড়ানোর কাজ করে বিজেপির আইটি সেল। তাঁর গায়ে ধর্মের জিগির তুলে কালি ছেটানোর চেষ্টাও আইটি সেলেরই কাঁচা হাতের কাজ বলে নিশ্চিত সিপিএম পলিটব্যুরো সদস্য। তাই ফেসবুক পোস্টটির বিরুদ্ধে লালবাজারে সাইবার সেলে অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। নিজেই ট্যুইট করে এই খবর জানানোর পাশাপাশি বিজেপির আইটি সেলের উদ্দেশে সেলিমের হুঁশিয়ারি, তোমাদের এই সস্তার ছক আমার উপর কাজ করবে না।

Comments
Loading...