ভোট শেষ না হওয়া পর্যন্ত মোদীর বায়োপিকের মুক্তি স্থগিত, সুপ্রিম কোর্টকে জানাল কমিশন

বিতর্কের অবসান। ভোট-মরসুমে মুক্তি পাচ্ছে না নরেন্দ্র মোদীর বায়োপিক। সুপ্রিম কোর্টকে জানিয়ে দিল নির্বাচন কমিশন। ১৯ শে মে দেশে শেষ দফার ভোট।

২২ শে এপ্রিল সুপ্রিম কোর্টে জমা দেওয়া রিপোর্টে নির্বাচন কমিশন জানায়, ‘পি এম নরেন্দ্র মোদী’ ছবিটি শুধু মোদীর জীবনী নয়, তার চেয়েও বেশি। প্রধানমন্ত্রীর জীবনের ওপর ভিত্তি করে এই সিনেমা ভোট চলাকালীন মানুষের উপর প্রভাব ফেলতে পারে, সুপ্রিম কোর্টে জানিয়েছে কমিশন। তাই আগামী ১৯ শে মে পর্যন্ত ছবির মুক্তির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি রাখার সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছে শীর্ষ আদালতে।
উমঙ্গ কুমার পরিচালিত, বিবেক ওবেরয় অভিনীত ‘পি এম নরেন্দ্র মোদী’ সিনেমাটির মুক্তি নিয়ে প্রায় একমাস ধরেই বিতর্ক চলছে। গত ৫ এপ্রিল ছবিটি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু নির্বাচনী বিধিভঙ্গের অভিযোগ করে নির্বাচন কমিশনকে চিঠি পাঠায় বিরোধীরা। জল গড়ায় সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত।

ভোট শেষ না হওয়া পর্যন্ত ‘পি এম নরেন্দ্র মোদী’ সিনেমাটির মুক্তিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল নির্বাচন কমিশন। এরপর পাল্টা শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হন ছবির নির্মাতারা। সুপ্রিম কোর্টে জমা দেওয়া রিপোর্টে কমিশন জানায়, নরেন্দ্র মোদীর জীবনের ওঠাপড়া, সঙ্ঘ পরিবারের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক, গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী থেকে দেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়া ওঠা, সবই দেখানো হয়েছে সংশ্লিষ্ট সিনেমায়। তাছাড়া, বিরোধীদের দুর্নীতিগ্রস্ত ও নেতিবাচকভাবে তুলে ধরা হয়েছে ছবিটিতে বলে রিপোর্টে জানিয়েছে কমিশন। পাশাপাশি ১৩৫ মিনিটের সিনেমাটিতে একটি নির্দিষ্ট রাজনৈতিক দলের প্রতীক ও স্লোগান ব্যবহার করা হয়েছে। যা ভোট চলাকালীন একটি নির্দিষ্ট রাজনৈতিক দলকে ইন্ধন যোগাতে পারে বলে মনে করছে কমিশন। তাই ১৯ শে মে, ভোটপর্ব শেষ না হওয়া পর্যন্ত মোদীর বায়োপিকের মুক্তি স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

Comments
Loading...