কাশ্মীরে অপারেশনের প্রস্তুতিতে এনএসজি কমান্ডো

কাশ্মীরে এবার এনএসজি কমান্ডো পাঠানোর উদ্যোগ নিল কেন্দ্র। সূত্রের খবর, কাশ্মীরে এমএসজি কমান্ডোদের এই মুহূর্তে বিশেষ প্রশিক্ষণ চলছে।
স্নাইপার রাইফেল, কর্নার শট অ্যাসল্ট রাইফেল, দেওয়াল ভেদ করা রাডার এই সব অত্যাধুনিক অস্ত্র নিয়েই ন্যাশনাল সিকিউরিটি গার্ড বা এনএসজি কমান্ডোরা মহড়ায় ব্যস্ত। সংবাদসংস্থা সূত্রে খবর, জম্মু-কাশ্মীরকে সন্ত্রাসমুক্ত করতে বদ্ধপরিকর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। সেই কারণেই এনএসজির এই স্নাইপার বাহিনীর প্রস্তুতি। সূত্রের খবর, শ্রীনগরের খুব কাছেই এক গোপন আস্তানাতে প্রায় ২৪ জন শীর্ষ এনএসজি কমান্ডো অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে অনুশীলনে ব্যস্ত।
বিজেপি-পিডিপির জোট সম্পর্ক ছিন্ন হওয়ার পরেই রাজ্যপালের শাসন জারি হয়েছে জম্মু- কাশ্মীরে। রাজ্যপাল এন এন ভোরা বৃহস্পতিবারেই তাঁর বিশেষ উপদেষ্টা পদে নিয়োগ করেছেন  ২০০৪ সালে চন্দন দস্যু বীরাপ্পন এনকাউন্টার অপারেশনের নেতৃত্ব দেওয়া আইপিএস অফিসার বিজয় কুমারকে এরপর এনএসজি  কমান্ডো বাহিনীকে উপত্যকায় পাঠানো কেন্দ্রীয় সরকারের পাক হানা মোকাবিলা করার মরিয়া মনোভাবকে প্রমাণ করে বলে মনে করছেন উপত্যকার রাজনৈতিক মহল। সংবাদসংস্থা সূত্রে খবর, প্রায় ১০০ জন কমান্ডো মোতায়েন রাখা হয়েছে। স্নাইপার বাহিনীর এই সদস্যরা অপহরণ দমনে বিশেষ পারদর্শী।
অন্যদিকে শুক্রবার কাশ্মীরে ভারতীয় সেনার সঙ্গে সংঘর্ষে মৃত্যু হয়েছে চার আইএস জঙ্গির। এইদিন ভোরে দক্ষিণ কাশ্মীরের অনন্তনাগে শুরু হয় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে জঙ্গিদের গুলির লড়াই। শহিদ হয়েছেন এক পুলিশ কর্মী। জম্মু- কাশ্মীর পুলিশ সূত্রে খবর, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে অনন্তনাগের শ্রীগুফুয়ারা এলাকা ঘিরে ফেলে ভারতীয় সেনা। সে সময় জঙ্গিরা গুলি চালালে জবাব দেয় বাহিনী।
এদিকে রাজ্যপাল সর্বদলীয় মিটিং ডেকেছেন কাশ্মীর সমস্যার সমাধানে।
Comments
Loading...