ধর্মীয় সফরের উদ্দেশ্যে এবার ছুটবে ভারতীয় রেলের ‘রামায়ণ এক্সপ্রেস’।

রামায়ণ মহাকাব্যে বর্ণিত স্থানগুলি ছুঁয়ে যাবে ভারতীয় রেলের বিশেষ ট্রেন। তাই ট্রেনের নাম ‘রামায়ণ এক্সপ্রেস’। ধর্মীয় সফরের জন্য এই প্রথম ভারতীয় রেল ঘোষণা করল আস্ত একটি ট্রেনের। চলতি বছরের ১৪ নভেম্বর যাত্রা শুরু করতে চলেছে ‘রামায়ণ এক্সপ্রেস’। মোট ১৬ দিনের সফরে রামায়ণ এক্সপ্রেসের মোট আসন সংখ্যা ৮০০। দিল্লির সফদর জং স্টেশন থেকে যাত্রা শুরু করে এই ট্রেনের প্রথম গন্তব্য হবে অযোধ্যা। এরপর রামায়ণ এক্সপ্রেস একে একে যাবে হনুমানগড়ি, নন্দীগ্রাম, সীতামারি, জনকপুর, বারাণসী, প্রয়াগ, শ্রীঙ্গবেরপুর, চিত্রকূট, নাসিক, হাম্পি এবং সব শেষে রামেশ্বরম। ইন্ডিয়ান রেলওয়েজ ক্যাটারিং ট্যুরিজম কর্পোরেশন (আইআরসিটিসি) সূত্রের খবর, ১৬ দিনের এই সফরের জন্য মোট খরচ পড়বে জন প্রতি ১৫ হাজার ২০০ টাকা। আইআরসিটিসির পক্ষ থেকে তীর্থযাত্রীদের জন্য থাকবে সংশ্লিষ্ট স্থানগুলিতে ধর্মশালায় রাত্রিবাসের ব্যবস্থা। তীর্থযাত্রীদের সহযোগিতার জন্য থাকবেন আইআরসিটিসির প্রশিক্ষিত ট্যুর ম্যানেজাররা। যাত্রীদের খাওয়ার ব্যবস্থাও করবে ভারতীয় রেল।
যদিও রামায়ণ এক্সপ্রেসের চাকা গড়ানোর আগেই এই ট্রেনকে কেন্দ্র করে দানা বাঁধতে শুরু করেছে বিতর্ক। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের আগেই ‘রামায়ণ এক্সপ্রেস’-এর সূচনা করে আসলে হিন্দুত্ব তাস খেলতে চাইছে কেন্দ্রের মোদী সরকার। আরএসএস বা বিশ্বহিন্দু পরিষদের মতো হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলিকে অনুসরণ করে এবার একই পথের পথিক হল খোদ কেন্দ্রীয় সরকার।

Comments
Loading...