অমর্ত্য সেনকে নিয়ে মিথ্যে ট্যুইট, নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা টাইমস অফ ইন্ডিয়ার সাংবাদিক ভারতী জৈনের

ট্যুইটারে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়ার সাংবাদিক ভারতী জৈনের। নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনকে নিয়ে একের পর এক মিথ্যে ট্যুইট করার অভিযোগ ছিল তাঁর বিরুদ্ধে। ডক্টর অমর্ত্য সেনকে নিয়ে তাঁর আগের ট্যুইটগুলি ভুল ছিল, তিনি ভুল তথ্য পেয়েছিলেন বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় জানান ভারতী জৈন। আর এই ভুলের জন্য অমর্ত্য সেন সহ অন্যান্যদের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী বলেও ট্যুইটে লেখেন ‘দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া’র ওই সাংবাদিক।

কয়েক দিন আগে বেশ কয়েকটি ট্যুইটে ভারতী জৈন দাবি করেন, নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য থাকাকালীন বিপুল আর্থিক দুর্নীতি এবং স্বজনপোষণে যুক্ত ছিলেন অধ্যাপক সেন। ভারতী জৈনের অভিযোগ ছিল, অমর্ত্য সেন মাসে ৫ লক্ষ টাকা বেতন ছাড়াও বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা পেতেন। যার মধ্যে ছিল, যতবার যে কোনও দেশে ঘোরার ছাড়পত্র। ২০১৪ সালে মোদী সরকার ক্ষমতায় এসে অমর্ত্য সেনের দুর্নীতি ধরে ফেলায়, নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্যের পদ থেকে তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হয়। তারপর থেকেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে অকারণ সমালোচনায় বিদ্ধ করছেন নোবেলজয়ী অমর্ত্য সেন বলে অভিযোগ করেন ওই সাংবাদিক। ভারতী জৈন দাবি করেন, তিনি সমস্ত তথ্যই পেয়েছেন সরকারি সূত্র থেকে। তারপর ট্যুইটগুলো ডিলিট করে দেন তিনি।
তবে সর্বভারতীয় নিউজ পোর্টাল ‘alt news’তাদের ফ্যাক্ট চেকিংয়ে জানায়, ভারতী জৈনের ট্যুইটগুলি মিথ্যে এবং উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। অধ্যাপক অমর্ত্য সেনের পাশাপাশি সরকারি তরফেও তাঁর এমন ট্যুইটের তথ্যের সত্যতা অস্বীকার করা হয়েছে। এরপরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুল স্বীকার করলেন ওই সাংবাদিক।

Comments
Loading...