আরএসএস: রাম মন্দির নির্মাণ কোনও রাজনৈতিক ইস্যু নয়, দেশের বিশ্বাসের ব্যাপার

৪০ তম দিনের মাথায় বুধবারই অযোধ্যা মামলার শুনানি পর্বে ইতি টেনেছে সুপ্রিম কোর্ট। তবে আপাতত এই মামলার রায়দান স্থগিত রেখেছে সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ বিচারপতির নেতৃত্বাধীন সাংবিধানিক বেঞ্চ। সূত্রের খবর আগামী কিছু দিনের মধ্যে আসতে পারে অযোধ্যা জমি বিবাদ মামলার রায়। আগামী ১৭ নভেম্বর অবসর নিতে চলেছেন দেশের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। মনে করা হচ্ছে তার আগেই দেশের সবচেয়ে বেশি আলোচিত, বিতর্কিত এবং রাজনৈতিকভাবে গুরুত্বপুর্ণ এই মামলার রায় ঘোষণা করবে শীর্ষ আদালত।
কী থাকবে আদালতের এই রায়ে তা নিয়ে দেশব্যাপী জল্পনার মধ্যেই বুধবার এ বিষয়ে তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য করেছেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘের (আরএসএস) অন্যতম নেতা মনমোহন বৈদ্য জি। বুধবার তিনি বলেন, অযোধ্যায় রাম মন্দির তৈরির বিষয়টি শুধুমাত্র রাজনৈতিক ইস্যু নয়। এটি দেশের বিশ্বাসের ব্যাপার। এক সাংবাদিক বৈঠকে তিনি আরও জানান, সংঘের স্বয়ংসেবকদের কঠোর পরিশ্রম এবং ধারাবাহিক প্রচেষ্টার ফলেই সমাজে সংঘের গ্রহণযোগ্যতা বেড়েছে। দেশজুড়ে যে সংঘের কাজকর্মের প্রসারতা বাড়ছে এদিন তাও জানিয়েছেন এই সংঘ নেতা। তাঁর মতে, অযোধ্যায় রাম মন্দির তৈরির বিষয় রাজনৈতিক ইস্যু নয়। এটি দেশের সামগ্রিক মানুষের বিশ্বাসের প্রশ্ন।
রাজনৈতিক মহলের মতে এই ধরণের মন্তব্য করে রাম মন্দির ইস্যুতে নিজেদের অবস্থান জোরালো করতে চাইছে সংঘ। বিষয়টিকে দেশের বিশ্বাস ও মর্যাদার সঙ্গে জড়িয়ে বকলমে শীর্ষ আদালতের উপর আরএসএস কোনও চাপ তৈরি করতে চাইছে কিনা, উঠছে সেই প্রশ্নও।
বিভিন্ন ইস্যুতে যখন কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদি সরকারের ওপর চাপ তৈরি হচ্ছে, সেই সময় সরকারেরও পাশে দাঁড়িয়েছেন এই সংঘ নেতা। বলেছেন, সব কাজ সরকার করে দেবে এটা ভাবা ঠিক নয়, সমাজকেও এগিয়ে আসতে হবে।

Comments
Loading...