মমতা ব্যানার্জি এবং রাজ্য সরকারকে আক্রমণে বাংলার রাজ্যপাল ধনকড়ের দোসর এবার তথাগত রায়। বাংলার রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের সমর্থনে ট্যুইট করে মেঘালয়ের রাজ্যপাল তথাগত রায় বেনজির আক্রমণ করলেন মমতা ব্যানার্জিকে। একটি রাজ্যের রাজ্যপালের অন্য এক রাজ্যের নির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রীকে এমন বেলাগাম ভাষায় আক্রমণে হতবাক রাজনৈতিক মহল।

বাংলার রাজ্যপাল হিসেবে জগদীপ ধনকড় দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই রাজ্য সরকারের সঙ্গে রাজভবনের বিতণ্ডার সূত্রপাত। যা ক্লাইম্যাক্সে পৌঁছোয় মঙ্গলবার, যখন রাজ্যপালের সই করা বিল না পৌঁছনোয় নজিরবিহীনভাবে দু’দিন বিধানসভার অধিবেশন মুলতুবি করে দেন স্পিকার। পাল্টা রাজভবনের তরফে জানানো হয়, তাদের তরফে বিলম্ব করা হয়নি। গোটা দোষ রাজ্যের কাঁধে চাপিয়ে রাজ্যপাল ধনকড়ও বলে দেন, রাজ্য সরকার গরুর গাড়ির মত চললে রাজভবন কী করবে? তারপরই বুধবার সকাল ৭ টা ২৪ মিনিটে একটি ট্যুইট করেন জগদীপ ধনকড়। সেখানে তিনি দাবি করেন, তিনি সংবিধান প্রদর্শিত পথে চলছেন। তিনি কারও রাবার স্ট্যাম্প বা পোস্ট অফিস নন।


ধনকড়ের ট্যুইটের ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই আসরে নেমে পড়েন মেঘালয়ের রাজ্যপাল তথাগত রায়। গভর্নর ধনকড়ের ট্যুইটকে ট্যাগ করে বঙ্গ বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি তথাগত রায় লেখেন, ‘একজন রাজ্যপালের তরফে আরও বড় এবং আরও অশান্তিপ্রবণ রাজ্যের রাজ্যপালের সঙ্গে এক হাজার শতাংশ একমত। আমার বাড়ির রাজ্যের রাজ্যপাল হওয়া সহজ নয়, বিশেষ করে একজন অযৌক্তিক ব্যক্তি যেখানে রয়েছেন। এরপরই উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উনের সঙ্গে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর তুলনা করেন তিনি।

রাজ্যপালের পদে থেকেও নিয়মিত অন্য রাজ্য সম্পর্কে ট্যুইট করে ইদানীং তথাগত রায় বারবার বিতর্ক সৃষ্টি করেছেন। বাংলার নির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রীকে ইঙ্গিত করে বিভিন্ন সময় রুচিহীন টিপ্পনিও করেছেন দিলীপ ঘোষ, রাহুল সিংহদের পূর্বসূরী। কিন্তু এবার রাজ্যপাল ধনকড়ের ট্যুইটকে ট্যাগ করে যে ভাষায় তিনি আক্রমণ করলেন মমতা ব্যানার্জিকে, তা সব মাত্রা ছাড়িয়েছে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশ।
যদিও তথাগত রায় বা জগদীপ ধনকড়ের এই লাগাতার আক্রমণকে গুরুত্বই দিচ্ছেন না মমতা ব্যানার্জি। তৃণমূল শিবিরের বক্তব্য, উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবেই বিজেপির এজেন্ট হিসেবে কাজ করছেন এই দুই রাজ্যপাল। তাঁরা যত এই ধরনের আচরণ করবেন, ততই মানুষের কাছে তাঁদের উদ্দেশ্য স্পষ্ট হবে। ঘরোয়া আলোচনায় তৃণমূল শিবির তথাগত রায় এবং ধনকড়কে ‘পদ্মপাল’ বলে সম্বোধন করছেন।

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা শুরু করেছি সাবস্ক্রিপশন অফার। নিয়মিত আমাদের সমস্ত খবর এসএমএস এবং ই-মেইল এর মাধ্যমে পাওয়ার জন্য দয়া করে সাবস্ক্রাইব করুন। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Subscribe