নির্দিষ্ট কয়েকজন নেতার নাম বলার জন্য চাপ দিচ্ছে ইডি-সিবিআই, আদালতে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ রোজভ্যালি কর্ণধারের

চিটফান্ড মামলায় রাজনৈতিক নেতাদের নাম বলার জন্য চাপ দিচ্ছে সিবিআই ও ইডি, চাঞ্চল্যকর অভিযোগ রোজভ্যালি কর্ণধার গৌতম কুণ্ডুর। বৃহস্পতিবার নগর দায়রা আদালতে রোজভ্যালি কর্ণধারের আরও অভিযোগ, চিট ফান্ড কেলেঙ্কারিতে তিনি যাঁদের নাম বলেছেন, তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকছে না সিবিআই-ইডি।
একটি মুখবন্ধ খামে অভিযোগ সম্বলিত চিঠিও আদালতে জমা করেছেন গৌতম কুণ্ডু। ধৃত রোজভ্যালি কর্তার এই অভিযোগে স্বাভাবিকভাবেই জল্পনা, কোনও বিশেষ নেতার নাম বলার জন্য কি সিবিআই চাপ দিচ্ছে তাঁকে? চিটফান্ড কাণ্ডে যে সব জড়িতদের নাম নিয়েছেন বলে তিনি দাবি করছেন, তাঁদেরকেই বা কেন জিজ্ঞাসাবাদ করছেন না তদন্তকারী অফিসাররা?
চিটফান্ড মামলায় রাজ্যের বেশ কয়েকজন নেতা-মন্ত্রী গ্রেফতার হয়েছিলেন। সারদার চেয়েও বাজার থেকে বেশি টাকা তোলার অভিযোগ রয়েছে রোজভ্যালির বিরুদ্ধে। সিবিআইয়ের অভিযোগ, সুদীপ্ত সেনের মতো গৌতম কুণ্ডুও রাজ্যের প্রভাবশালী ও পুলিশ প্রশাসনের একাধিক কর্তার মদত পেয়েছেন। সেই নামগুলি বলার জন্যই রোজভ্যালি কর্তাকে চাপ দেওয়া হচ্ছে বলে সূত্রের খবর। অন্যদিকে, গৌতম কুণ্ডুর অভিযোগ, তদন্তে তিনি যাঁদের নাম নিয়েছেন, তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে না। সূত্রের খবর, রোজভ্যালিরই এক কর্তার বিরুদ্ধে সিবিআইয়ের কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন গৌতম কুণ্ডু। তাঁর অভিযোগ, সিবিআই মামলা থেকে তাঁকে ক্লিনচিট পাইয়ে দেবেন বলে তাঁর সংস্থারই এক কর্তা মোটা অঙ্কের টাকা নেন। কিন্তু সেই টাকা আর ফেরত পাননি গৌতম কুণ্ডু। অন্যদিকে, সিবিআইয়ের হাত থেকে বাঁচার জন্য রোজভ্যালি কর্তা যে টাকা দিয়েছিলেন, তা আদালতে স্বীকার করলে গৌতম কুণ্ডুর বিপদ বাড়তে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।
পাশাপাশি, তাঁর কাছ থেকে রাজনৈতিক নেতার নাম জানতে চাওয়া হচ্ছে বলে যে অভিযোগ করেছেন গৌতম কুণ্ডু তা সম্পূর্ন ভিত্তিহীন বলে দাবি করেন ইডির আইনজীবী অভিজিৎ ভদ্র। সিবিআইও জানিয়েছে, কোনও বিশেষ নেতার নাম বলার জন্য রোজভ্যালি কর্তাকে চাপ দেওয়া হয়নি।

Comments are closed.