দেশের ৩ হাজার স্টেশনে ফ্রি ওয়াই-ফাই পরিষেবা চালু, লক্ষ ৬ হাজার স্টেশন

দেশের ৩ হাজার রেল স্টেশনে হাইস্পিড ফ্রি ওয়াই-ফাইয়ের সুবিধা চালু করল ভারতীয় রেল। ১৫ দিনের মধ্যে দেশের ১ হাজার রেল স্টেশনে ওয়াই-ফাই সংযুক্ত করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করল ভারতীয় রেল।
সফর শুরু ২০১৭ সালে। মুম্বই সেন্ট্রাল স্টেশনে প্রথমবার বিনামূল্যে ওয়াই-ফাই পরিষেবা চালু করেছিল ভারতীয় রেল। এর পরের ১৬ মাসে দেশের ১ হাজার ৬০০টি স্টেশনে ওয়াই-ফাই সুবিধা চালু করে ফেলে ভারতীয় রেল। এইভাবে গত সোমবার হরিয়ানার এলেনাবাদ স্টেশনে বিনামূল্যে হাই-স্পিড নেট পরিষেবা চালু করে এখনও পর্যন্ত ৩ হাজার রেল স্টেশনে ওয়াই-ফাই চালু করে রেকর্ড গড়ল ভারতীয় রেল। শুধু তাই নয়, মাত্র ১৫ দিনেই ১ হাজার স্টেশনে ওয়াইফাই সুবিধা চালু করা হয়েছে বলে জানিয়েছে রেল মন্ত্রক। ভারতীয় রেলের লক্ষ্য দেশের ৬ হাজার স্টেশনে বিনামূল্যে ইন্টানেট পরিষেবা চালু করার।
২০১৬ সালে রেলওয়ের টেলি-কমিউনিকেশন বিভাগ ‘রেলটেল’ প্রত্যেক স্টেশনে ইন্টারনেট পরিষেবা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা স্থির করে। যাত্রা শুরু হয় মুম্বই সেন্ট্রাল স্টেশন দিয়ে। রেলটেলের সিএমডি পুনীত চাওলা জানান, আগামী দিনে দেশের সব রেল স্টেশনে ওয়াইফাই পরিষেবা পৌঁছে দেওয়াই তাঁদের লক্ষ্য। তাঁর কথায়, মাত্র ১৫ দিনের মধ্যে দেশের ১ হাজার স্টেশনে ওয়াই-ফাই চালু করতে পারাটা রেলের যোগ্যতা ও একনিষ্ঠতার প্রমাণ দেয়।
রেলের ওয়াই-ফাই পরিষেবা পাওয়ার জন্য যে কোনও যাত্রীকে তাঁর স্মার্ট ফোনের ওয়াই-ফাই মোড অন করতে হবে। এরপর রেলওয়্যার ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কের সঙ্গে কানেক্ট করলে ওয়াম-টাইম পাসওয়ার্ড পৌঁছে যাবে সংশিষ্ট যাত্রীর ফোন নম্বরে। ওটিপি দিলেই রেলের ওয়াই-ফাইতে যুক্ত হয়ে হাই-স্পিড ইন্টারনেট ব্রাউজিংয়ের সুবিধা নিতে পারবেন যে কোনও উপভোক্তা।
রেলটেলের সিএমডি পুনীত চাওলার কথায়, রেলের উদ্দেশ্য গ্রামাঞ্চলের মানুষদেরও যাতে ডিজটাল পরিষেবা দেওয়া যায়। মূলত এই লক্ষেই শহর থেকে প্রত্যন্ত গ্রামের রেল স্টেশনে বিনামূল্যে ওয়াই-ফাই পরিষেবা চালু করার কথা ভাবেন তাঁরা।

Comments
Loading...