কাশ্মীরে ভেঙে পড়ল ভারতীয় বিমানঃ গুলি করে নামিয়েছি, দাবি পাকিস্তানের। পাক দাবি খারিজ ভারতের

পাকিস্তানের সীমানা লঙ্ঘন করা দুটি ভারতীয় বিমানকে গুলি করে নামানো হয়েছে বলে দাবি করল পাকিস্তান। বুধবার সকাল ১১ টা ৪৯ মিনিটে পাকিস্তানের ইন্টার সার্ভিসেস পাবলিক রিলেশনসের ডিরেক্টর জেনারেল মেজর জেনারেল আসিফ গফুর ট্যুইট করে দাবি করেন, ‘ভারতীয় বায়ুসেনা সীমান্ত লঙ্ঘন করলে পাকিস্তান সেনা গুলি করে দুটি বিমানকে গুলি করে নামানো হয়েছে। তার মধ্যে একটি ভারত অধিকৃত কাশ্মীরে এবং অন্যটি স্বাধীন কাশ্মীরে ভেঙে পড়ে। এক ভারতীয় পাইলটকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’ সঙ্গে সঙ্গেই পাক সরকারের এই বক্তব্যকে খারিজ করেছে ভারত।
সরকারিভাবে ভারত সরকারের পক্ষ থেকে কিছু না বলা হলেও, সূত্রের খবর, ভারত পাকিস্তানের এই দাবিকে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন বলে জানিয়েছে। জানা গিয়েছে, জম্মু-কাশ্মীরের বুদগাম জেলায় এদিন সকালে ভেঙে পড়ে ভারতীয় বায়ুসেনার বিমান একটি বিমান। বুধবার সকালে এই ঘটনার জেরে দু’জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। পাকিস্তানের তরফে দাবি করা হয়েছে, ‘লাইন অফ কন্ট্রোল’ পেরিয়ে যাওয়াতেই গুলি করে নামানো হয়েছে ভারতীয় যুদ্ধ বিমানটিকে। যদিও পাকিস্তানের এই দাবি নস্যাৎ করেছে ভারত। পাক হামলায় নয়, যুদ্ধ বিমান ভেঙে পড়ার জন্য দায়ী পাইলট, দাবি ভারতের।
সূত্রের খবর, বুধবার সকাল ১০ টা নাগাদ রাশিয়ায় তৈরি এমআই-১৭ ফাইটার জেটটি বুদগাম জেলার গরিন্দ কালান গ্রামের একটি ফাঁকা মাঠে ভেঙে পড়ে। প্রচণ্ড বিস্ফোরণে দু’ভাগে ভেঙে আগুন ধরে যায় যুদ্ধ বিমানটিতে। তবে কী কারণে এই বিস্ফোরণ হয়েছে তা এখনই স্পষ্ট নয়। সেনা ও পুলিশের পক্ষ থেকে এলাকাজুড়ে কড়া সতর্কতা জারি করা হয়েছে। জাতীয় প্রতিরক্ষা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল ভারতীয় সেনার উচ্চপদস্থ অফিসার ও তদন্তকারী অফিসারদের সঙ্গে এনিয়ে আলোচনা করেন বলে জানা গিয়েছে।
অন্যদিকে, এফ-১৬ নামে একটি পাকিস্তানি যুদ্ধ বিমানও পাক মাটিতে ভেঙে পড়ার খবর পাওয়া গিয়েছে।

Comments
Loading...