২ হাজার টাকার নোট কি বাতিল হচ্ছে, জোর জল্পনা

২০১৬ সালের ৮ নভেম্বর ৫০০ ও ১ হাজার টাকার নোট বাতিল বলে ঘোষণা করলেন নরেন্দ্র মোদী। চালু হল ২ হাজার টাকার নোট। এবার সেই ২ হাজার টাকার নোট নিয়েও প্রশ্ন উঠে গেল। কেন্দ্রীয় সরকারের কিছু তথ্য, প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থ সচিবের কিছু মন্তব্যকে ঘিরে জল্পনা তৈরি হয়েছে, তবে কি এবার কেন্দ্রীয় সরকার ২ হাজার টাকার নোটও বাতিল করার পথে হাঁটছে? কেন্দ্রীয় সরকার অবশ্য এই জল্পনা উড়িয়ে দিয়েছে।
তিন বছর আগে ২ হাজার টাকার নোট চালু নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক ব্যানার্জি থেকে বহু বিশেষজ্ঞ। তাঁদের যুক্তি ছিল, বড় মূল্যের নোটের ক্ষেত্রে কালোবাজারি আরও সহজ হবে। মোদী সরকারের নোটবন্দির তিন বছরের মধ্যে বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কাই সত্যি হল। কেন্দ্রীয় তথ্য বলছে, চলতি আর্থিক বছরে যত পরিমাণ হিসাব বহির্ভূত টাকা বাজেয়াপ্ত হয়েছে, তার সিংহভাগ জুড়ে রয়েছে ২ হাজার টাকার নোট। বলা যেতে পারে, হিসাববহির্ভূত নগদ টাকা লেনদেন ও সম্পত্তি বৃদ্ধিতে ২ হাজার টাকার নোটেরই রমরমা বেশি। আয়কর দফতরের সাম্প্রতিক তথ্য বলছে, হিসাববহির্ভূত যত সংখ্যক নগদ টাকা এই আর্থিক বছরে বাজেয়াপ্ত হয়েছে তার প্রায় অর্ধেকই ২ হাজার টাকার নোট। যা গত দুই আর্থিক বছরের তুলনায় ৬০ শতাংশ বেশি।
এদিকে মঙ্গলবার রাজ্যসভায় এক লিখিত জবাবে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন জানান, ২০১৯-২০ আর্থিক বছরে এখনও পর্যন্ত বেআইনি লেনদেনের অভিযোগে যে পরিমাণ টাকা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে তার ৪৩.২১ শতাংশই ২ হাজার টাকার নোট। ২০১৭-১৮ ও ২০১৮-১৯ আর্থিক বছরে তা যথাক্রমে ছিল ৬৭.৯১ শতাংশ এবং ৬৫.৯৩ শতাংশ। আগের থেকে ২ হাজার টাকার নোটে কালোবাজারি কমেছে বলে কেন্দ্রের তরফে দাবি করা হলেও, অন্যান্য নোটের চেয়ে হিসাববহির্ভূত লেনদেনে যেভাবে ২ হাজার টাকার নোটের ছয়লাপ হচ্ছে, তাতে প্রশ্ন উঠছেই।
মোদী সরকারের আমলে ২ হাজার টাকার নোট চালু করার পর থেকেই অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞরা এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছিলেন। যদিও কেন্দ্রীয় সরকারের যুক্তি ছিল, বড় আর্থিক লেনদেনের ক্ষেত্রে বিশেষ কার্যকরী হবে এই গোলাপি রঙের নোট। কিন্তু নোটবন্দির মাত্র তিন বছরের মধ্যেই এই ২ হাজার টাকার নোট নিয়ে প্রশ্ন উঠল, যখন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থ সচিব এস সি গর্গ জানালেন, দু’ হাজারি নোট জমানোর প্রবণতার জন্য বাজারে এর প্রচলন কমছে। তাই আর্থিক লেনদেনেও এই নোটের ব্যবহার কমছে। এর মধ্যে কেন্দ্রের তরফেও ২ হাজার টাকার নোটের সরবরাহ কমিয়ে আনা হয়েছে। এ সবের ভিত্তিতেই বাজারে জোর জল্পনা ২ হাজার টাকার নোট বাতিল নিয়ে।

Comments
Loading...