জানুয়ারিতে ভারতে অ্যামাজন মালিক জেফ বেজোস, ই-কমার্স ব্যবসার অসুবিধা নিয়ে মোদীর সঙ্গে বৈঠকের সম্ভাবনা

বিদেশি প্রত্যক্ষ বিনিয়োগ (এফডিআই) নীতিতে পরিবর্তনের জেরে বিপাকে পড়েছে অ্যামাজন, ফ্লিপকার্টের মতো ই-কমার্স সংস্থা। এই পরিপ্রেক্ষিতে আগামী জানুয়ারি মাসে ভারত সফরে আসছেন অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস। সূত্রের খবর, ভারতে অ্যামাজনের ব্যবসা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে কথা হতে পারে তাঁর।
স্বল্প দামে পণ্য বিক্রি করে বলে মার্কিন ই-কমার্স সংস্থা অ্যামাজনের বিরুদ্ধে বহুদিন ধরে অভিযোগ রয়েছে। অ্যামাজন, ফ্লিপকার্টের মতো ই-কমার্স সংস্থাগুলির ‘অনৈতিক’ ব্যবসার দাপটে চরমে সঙ্কটে দেশের খুচরো ব্যবসায়ীরা। এ নিয়ে কিছুদিন আগেই কেন্দ্র জানিয়ে দেয়, ই-কমার্স সংস্থাগুলির যথেচ্ছ ব্যবসা নীতি বরদাস্ত করা হবে না। ব্যবসায়িক স্বার্থে বিপুল ছাড় দিয়ে জিনিস বেচার নীতি পরিবর্তন না হলে বিদেশি ই-কমার্স সংস্থাগুলির বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করবে তারা। সূত্রের খবর, ভারতে প্রায় ৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করা অ্যামাজন কর্ণধার এ নিয়ে যথেষ্ট উদ্বিগ্ন। তাই জানুয়ারিতে ভারত সফরকালে তিনি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এ নিয়ে বৈঠক করতে পারেন। ভারতে মার্কিন ই-কমার্স সংস্থার বিনিয়োগ, কর্মসংস্থান তৈরিতে সাহায্য এবং সর্বোপরি ভারতে স্থিতিশীল ব্যবসায়িক পরিবেশ চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আর্জি জানাতে পারেন জেফ বেজোস।
অ্যামাজন, ফ্লিপকার্টের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরে অনৈতিক ব্যবসা চালানোর অভিযোগ করছেন খুচরো ব্যবসায়ীরা। গত উৎসবের মরসুমে দুই বিদেশি ই-কমার্স সংস্থার বিরুদ্ধে অভিযোগ চরমে ওঠে। অক্টোবর মাসের ১৫ দিনে পণ্যে বিপুল ছাড় দিয়ে প্রায় ৩১ হাজার কোটি টাকার ব্যবসা করে অ্যামাজন-ফ্লিপকার্ট। এরপর কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স (সিএআইটি), অল ইন্ডিয়া মোবাইল রিটেলারস অ্যাসোসিয়েশন (এআইএমআরএ) অ্যামাজন, ফ্লিপকার্টের ডিসকাউন্ট দিয়ে ব্যবসা করার নীতির প্রবল বিরোধিতা করে। সবারই অভিযোগ, বিদেশি প্রত্যক্ষ বিনিয়োগ (এফডিআই) নীতির তোয়াক্কা না করেই ব্যবসা চালাচ্ছে ফ্লিপকার্ট, অ্যামাজন। অন্যদিকে, অ্যামাজন ও ফ্লিপকার্টের পাল্টা দাবি,নীতি মেনেই ভারতে ব্যবসা করছে তারা।
প্রসঙ্গত, সেপ্টেম্বরে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদীকে এ নিয়ে চিঠিও দেয় ফ্লিপকার্টের পেরেন্ট সংস্থা ওয়ালমার্ট। ভারতে স্থিতিশীল ব্যবসায়িক পরিবেশ চেয়ে মোদীকে আবেদনও করেছিলেন ওয়ালমার্টের সিইও ডগ ম্যাকমিলন। এবার অ্যামাজন মালিকও ভারতে ব্যবসা নিয়ে মোদীর সঙ্গে আলোচনা করতে পারেন বলে খবর।

 

Comments
Loading...