‘নাটক বন্ধ করুন’, ট্রেন দুর্ঘটনায় মৃত শিশুদের পরিবারের ক্ষোভের মুখে মেজাজ হারালেন যোগী

কানে ইয়ারফোন লাগিয়ে চালকের স্কুল ভ্যানে চালানোর মাসুল দিতে হল ক্ষুদে স্কুল পড়ুয়াদের। বৃহস্পতিবার উত্তরপ্রদেশের কুশিনগরে চলন্ত প্যাসেঞ্জার ট্রেনের সঙ্গে একটি স্কুল ভ্যানের সংঘর্ষে প্রাণ হারাল ১৩ জন স্কুল পড়ুয়া। ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে স্কুল ভ্যানটির চালকেরও। আহত হয়েছে আরও পাঁচ স্কুল পড়ুয়া। তানকুহি ও দুয়েধি স্টেশনের মাঝে একটি রক্ষীবিহীন রেলওয়ে ক্রসিং পেরোতে গিয়ে এদিন সকাল ৭ টা ১০ মিনিট নাগাদ দুর্ঘটনাটি ঘটে বলে জানা গেছে। ট্রেনটি উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুর থেকে বিহারের সিওয়ান যাচ্ছিল। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে এদিন ঘটনাস্থলে যান উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। সেখানে গিয়ে তিনি মৃত শিশুদের পরিবারবর্গের বিক্ষোভের মুখে পড়েন। ঘটনায় স্থানীয় এবং রেল কর্তৃপক্ষের গাফিলতির অভিযোগ তুলে স্লোগান দিতে থাকেন তাঁরা। এতেই চটে যান যোগী। বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘নাটক বন্ধ করুন।’

রেলের তরফে দাবি করা হয়েছে, দুর্ঘটনার আগের মুহূর্তে সাবধান করা সত্বেও স্কুল ভ্যানের চালক তাতে কান না দেওয়ায় এদিন এত বড় দুর্ঘটাটি ঘটে। অন্য একটি সূত্রে দাবি করা হয়েছে, ওই রক্ষীবিহীন রেলওয়ে ক্রসিং পেড়োনোর আগে স্কুল ভ্যান চালককে এক রেল কর্মী সতর্ক করলেও কানে হেডফোন থাকায় তা শুনতে পাননি চালক। ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগি আদিত্যনাথ। উত্তর প্রদেশ সরকারের তরফে মৃতদের পরিবারকে দু-লক্ষ টাকা করে সাহায্যের ঘোষণা করা হয়েছে। ক্ষতিপূরণের ঘোষণা করেছে রেল মন্ত্রকও। উত্তর-পূর্ব রেলের তরফে ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Comments
Loading...