বাংলাকে বদনামের চেষ্টা চলছে, কেন্দ্র কম কিট দিচ্ছে, মানুষকে বাঁচাবো কী করে? দিল্লিকে নিশানা করে আক্রমণাত্মক মুখ্যমন্ত্রী

করোনা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে পাঠানো জোড়া দল নিয়ে নজিরবিহীন সংঘাতে জড়িয়েছিল কেন্দ্র-রাজ্য। অসন্তোষ ব্যক্ত করে মুখ্যমন্ত্রী চিঠি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে। এবার মুখ খুললেন মমতা ব্যানার্জি। করোনা মোকাবিলায় রাজ্যের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠছে সরাসরি তার দায় চাপালেন কেন্দ্রের ঘাড়ে। পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রীর নিশানায় জাতীয় সংবাদমাধ্যমের একাংশ। বললেন, বাইরে থেকে করোনা এনে রাজ্যে ছেড়ে দিলে বোধহয় কিছু চ্যানেল খুশি হবে।
বুধবার মমতা ব্যানার্জি অভিযোগ করেন, বাংলাকে বদনাম করার খুব চেষ্টা চলছে। তাঁর প্রশ্ন, করোনা পরীক্ষা যদি সময়ে না করা যায় তাহলে মৃত্যু ঠেকাবো কী করে? কেন্দ্র ত্রুটিপূর্ণ র‍্যাপিড টেস্ট কিট তুলে দিয়েছে। আরটিপিসিআর টেস্ট কিটও তুলে নেওয়া হচ্ছে। এর দায় নিতে হবে কেন্দ্রকেই, বলেন মুখ্যমন্ত্রী।
পাশাপাশি নাম না করে জোড়া কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক দলকেও নিশানা করেন মমতা। বলেন, কেন্দ্র কী পরিকল্পনা করছে তা বুঝতে পারছি না! মাঝেমাঝেই দল পাঠিয়ে বলা হচ্ছে, বাংলার মানুষ কীভাবে থাকছে দেখে এসো। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, কড়া চিঠি দিয়ে কী প্রমাণ করতে চাইছে কেন্দ্র? কেন্দ্রের চিঠিতে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের উল্লেখ ছিল। এই প্রসঙ্গে মমতা কৃতজ্ঞতা জানান শীর্ষ আদালতকে। বলেন, ভুলে গেলে চলবে না সুপ্রিম কোর্ট ওই নির্দেশ দিয়েছিল ফেক নিউজ আর পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে।
মুখ্যসচিব জানিয়েছেন, রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৬ জন। এর ফলে রাজ্যে এই মুহূর্তে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩০০। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ৮৫৫ টি টেস্ট হয়েছে বলেও জানান রাজীবা সিনহা।

Comments
Loading...