করোনা আবহে পুর প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের ৬,৫০০ কর্মীকে ইনসেনটিভ দেওয়ার ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির। শহরাঞ্চলে প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা আরও জোরদার করার লক্ষ্যে রবিবার নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে এই ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। এই ইনসেনটিভ পাওয়ার পাশাপাশি পুরসভার প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলিতে কর্মরত সাম্মানিক স্বাস্থ্য কর্মীরা বা অনারারি হেলথ ওয়ার্কার (HHW) বিশেষ প্রশিক্ষণ পাবেন বলেও মুখ্যমন্ত্রী ওই ট্যুইট বার্তায় জানান।

মমতা ট্যুইটারে লিখেছেন, প্রসূতি ও শিশুর স্বাস্থ্য, টিকাকরণ, যক্ষ্মা নির্মূল কর্মসূচি এবং অন্যান্য রোগ নিয়ন্ত্রণের কাজ করবেন ওই স্বাস্থ্য কর্মীরা। আগামী বুধবার শুরু হচ্ছে এই প্রকল্প। অন্তত সাড়ে ছ’হাজার অনারারি স্বাস্থ্য কর্মী এই প্রকল্পে উপকৃত হবেন বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

এই স্বাস্থ্য কর্মীরা এক থেকে দু’হাজার টাকা ইনসেনটিভ পাবেন বলে খবর।

আশাকর্মীদের ধাঁচে এই উৎসাহ ভাতা দেওয়া হচ্ছে প্রশিক্ষিত স্বাস্থ্য কর্মীদের। স্বাস্থ্য দফতরের এক পদস্থ কর্তার কথায়, মায়েদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা, হাসপাতালে ভর্তি করানো, শিশুদের টিকা দেওয়া, যক্ষ্মা রোগের খবর দেওয়ার মতো কাজ করে বেতনের পাশাপাশি উৎসাহ ভাতা হিসেবে আরও কিছু টাকা পান আশাকর্মীরা। HHW দের জন্যও সাম্মানিক ভাতা ঘোষণায় মুখ্যমন্ত্রীকে সাধুবাদ জানিয়েছেন তাঁরা।

এদিকে রবিবার রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের প্রকাশিত বুলেটিনের তথ্য অনুযায়ী, বাংলায় এক দিনে ৫৭২ জনের দেহে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব মিলেছে। রাজ্যে একদিনে সংক্রমিতের পরিসংখ্যানে এ পর্যন্ত এটাই সর্বাধিক। সংক্রমণ-মানচিত্রে ভাইরাসের দাপট চলছে মূলত শহরাঞ্চলেই। সংক্রমিতের সংখ্যায় ধারাবাহিক ভাবে শীর্ষে থাকা তিন জেলা হল কলকাতা (১৭১), উত্তর ২৪ পরগনা (১৩২) এবং হাওড়া (৭৮)।

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Support us

You may also like

Madhyamik Result Tomorrow
Hemtabad MLA Death Update