যাত্রা শুরু মায়ের রান্নাঘরের, মাত্র ৫ টাকায় ভাত, ডাল, তরকারি ও ডিমের ঝোল

একগুচ্ছ সরকারি প্রকল্পের উদ্বোধন

সোমবার নবান্নের সভাঘর থেকে ‘মায়ের রান্নাঘর’ প্রকল্পের ভার্চুয়াল উদ্বধোন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। কলকাতার পাশাপাশি হাওড়া, মেদিনীপুর, কৃষ্ণনগর, বালুরঘাট, মালদহ জেলার পুরসভায় এই প্রকল্পের সূচনা হয়।
এই প্রকল্পে মাত্র ৫ টাকায় ভাত, ডাল, সবজি ও ডিমের ঝোল দেওয়া হবে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে। প্রকল্পের সূচনা করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, এই কর্মসূচি সাধারণ মানুষের জন্য। আপাতত কিছু জায়গায় শুরু হলেও আস্তে আস্তে গোটা রাজ্যে শুরু হবে।

মায়ের রান্নাঘরের পাশাপাশি এদিন রাজ্য সরকারের একগুচ্ছ প্রকল্পের উদ্বধোন করেন মুখ্যমন্ত্রী। অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিসের পড়াশুনার জন্য রাজ্য সরকারের উদ্যোগে নেতাজি সুভাষ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের উদ্বোধন করা হয়। রাজ্য সরকারের উদ্যোগে বিনামূল্যে সিভিল সার্ভিসের জন্য এখানে পড়াশুনা করার সুযোগ পাবে পড়ুয়ারা। পাশাপাশি পড়ুয়াদের বিনামূল্যে থাকার জন্য সুরেন্দ্রনাথ ব্যানার্জির নামাঙ্কিত একটি হোস্টেলেরও উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী।

এছাড়া এদিনের অনুষ্ঠান থেকে এক লক্ষ সবুজ সাথীর সাইকেল দেওয়া হয় পড়ুয়াদের। ঠাকুর পঞ্চানন বর্মার মূর্তি উন্মোচন করেন। সিধু, কানুর মূর্তি এবং হাওড়ায় শঙ্করাচার্যের মূর্তি উন্মোচন করা হয়।

[আরও পড়ুন- সকালেই সুজনকে ফোন করে সমবেদনা, চাকরি, অর্থ সাহায্য করা হবে, DYFI নেতার মৃত্যুতে বললেন মুখ্যমন্ত্রী]

রাজ্য সরকারের তরফে একটি ক্যান্সার রেজিট্রেশন সেন্টার চালু করা হয়। রাজ্যবাসী ক্যান্সারের চিকিৎসা সংক্রান্ত যাবতীয় খবর এই সেন্টার থেকে পাবেন। পাশাপাশি এদিনের সাংবাদিক বৈঠক থেকে দুয়ারে সরকার ও পাড়ায় সমাধান কর্মসূচির সাফল্যের খতিয়ান তুলে ধরে মুখ্যমন্ত্রী দুটি বই প্রকাশ করেন। এছাড়াও এদিন ব্রিটিশ কাউন্সিলের তরফ থেকে বাংলার ট্যুরিজমে দূর্গাপূজার প্রভাব নিয়ে একটি গবেষণামূলক বই প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী। বইয়ের তথ্য অনুযায়ী পশ্চিম বাংলার দূর্গাপুজাকে কেন্দ্র করে, ৩২,৮০০ কোটি টাকার ব্যবসা হয়েছে। পাশাপাশি এদিন নাইন থেকে টেনে ওঠা স্কুল পড়ুয়াদের সবুজ সাথীর সাইকেল দেওয়া হবে এই মর্মে একটি আশ্বাসপত্র দেওয়া হয়। লকডাউন চলাকালীন এই পড়ুয়ারা সবুজ সাথীর সাইকেল পায়নি।

Comments
Loading...