নমো টিভি নিয়ে ট্যুইট করে বিতর্ক উস্কে দিল টাটা স্কাই, এই চ্যানেল নিয়ে কেন্দ্রের জবাব চাইল নির্বাচন কমিশন

‘নমো টিভি’ বিতর্কে টাটা স্কাইয়ের নিজস্ব ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে ট্যুইট নতুন মাত্রা যোগ করল রাজনৈতিক তরজায়। গত ৩১ শে মার্চ ‘নমো টিভি’ লঞ্চ হয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় দেশের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী আবেদন করেছিলেন সংশ্লিষ্ট চ্যানেলে তাঁর অনুষ্ঠানে চোখ রাখতে। এই হিন্দি টিভি চ্যানেলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নানা বক্তব্য এবং বিজেপি ঘেঁষা বিজ্ঞাপন সম্প্রচারিত হয়। কিন্তু বিরোধীদের অভিযোগ, লোকসভা নির্বাচনের ঠিক আগে নমো টিভি লঞ্চ করে ভোট প্রচারের জন্য নয়া কৌশল তৈরি করেছে বিজেপি, যা নির্বাচনী আদর্শ আচরণ বিধি ভঙ্গের সমান।
‘নমো টিভি’ নিয়ে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানায় আম আদমি পার্টি ও কংগ্রেস। কংগ্রেসের দাবি, নমো টিভিতে ভোটের আগে প্রধানমন্ত্রী ও বিজেপি নেতাদের সাক্ষাৎকার, বিজেপি সরকার ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নিজস্ব কৃতিত্ব প্রচার করে নির্বাচনী বিধি ভাঙছে তারা। এই অভিযোগের ভিত্তিতে কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের কাছে নির্বাচন কমিশন রিপোর্ট তলব করে। গত বুধবার কেন্দ্রীয় তথ্য সম্প্রচার মন্ত্রক থেকে দাবি করা হয়, নমো টিভি আর পাঁচটা সাধারণ টিভি চ্যানেলের মতো নয়। শুধুমাত্র একটি ‘বিজ্ঞাপনী প্ল্যাটফর্ম’। তাই এই চ্যানেলের সম্প্রচারের ক্ষেত্রে সরকারি অনুমোদন জরুরি নয়।
এই প্রেক্ষিতে ডিটিএইচ সার্ভিস প্রোভাইডার টাটা স্কাইয়ের তরফে একটি ট্যুইট নতুন করে প্রশ্ন তুলল, ‘নমো টিভি’ নিছক বিজ্ঞাপনী প্ল্যাটফর্ম, নাকি অন্যান্য প্রাইভেট চ্যানেলের মধ্যেই পড়ে।
নমো টিভির লঞ্চের ঠিক আগে বিজ্ঞাপনী প্রচারের লক্ষ্যে, টাটা স্কাই সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার করেছিল, ৫১২ নম্বর চ্যানেলে সম্প্রচারিত হওয়া নমো টিভি একটি হিন্দি সংবাদ মাধ্যম। যেখানে জাতীয় রাজনীতির ‘ব্রেকিং নিউজ’ পাওয়া যাবে। পাশাপাশি, বিজেপির নিজস্ব ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে দর্শকদের আবেদন করা হয়, নমো টিভির সাম্প্রতিক সাক্ষাৎকার বা বিজেপির প্রচারে চোখ রাখতে।
এই ট্যুইটের প্রেক্ষিতে স্বাভাবিকভাবে প্রশ্ন উঠছে প্রধানমন্ত্রীর নাম ও ছবি ব্যবহার করা হয় যে চ্যানেলে, প্রায় প্রত্যেক ডিটিএইচ ও কেবিলে যে চ্যানেল সম্প্রচার হয় ২৪ ঘন্টা, তা কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের দাবি মতো শুধুই ‘বিজ্ঞাপনী প্লাটফর্ম’, নাকি খবরের চ্যানেল? এটাও পরিষ্কার নয়, কারা এই চ্যানেলের মালিক বা ‘নমো টিভি’ তৈরিতে টাকা জোগান দিয়েছেন কারা।
‘নমো টিভি’ প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা অরুণ জেটলিকে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে, তিনি জানান কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক এবং নির্বাচন কমিশন সংশ্লিষ্ট বিষয়টি দেখছে। তাই এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য তিনি করবেন না।

Comments
Loading...