লিগে ঘুরে দাঁড়ানোর ম্যাচে ইস্টবেঙ্গলের ভরসা নবাগত মার্কোস

ডুরান্ড কাপ ইস্টবেঙ্গলের কাছে অতীত। সেমিফাইনাল থেকে ছিটকে যেতে হয়েছে লালহলুদকে। এই নিয়ে ইস্টবেঙ্গল সর্মথকরা হতাশ হলেও, এখনও তাঁরা কোচের পাশে দাঁড়িয়েছেন। এরই মধ্যে শুক্রবার স্প্যানিশ অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার জুয়ান মেরাকে সই করিয়ে বিদেশি কোটা সম্পূর্ণ করেছে ইস্টবেঙ্গল।

এখন সামনে কলকাতা লিগ। সেখানেও প্রথম ম্যাচে হেরে শুরু করেছে ইস্টবেঙ্গল। রবিবারের দ্বিতীয় ম্যাচে বিএসএস-এর মুখোমুখি হচ্ছে আলেজান্দ্রো ব্রিগেড।

এই ম্যাচে জিততেই হবে ইস্টবেঙ্গলকে। ডুরান্ড ব্যর্থতার পর কলকাতা লিগের ম্যাচে জয় না আসলে, সমর্থকদের যে ধৈর্যের বাঁধ ভাঙতে পারে, তা ভালই জানে টিম ম্যানেজমেন্ট। তাই যে কোনওভাবেই হোক, লিগের দ্বিতীয় ম্যাচে জয় আনতে তারা মরিয়া। এই ম্যাচে তিন বিদেশি নিয়ে মাঠে নামবে ইস্টবেঙ্গল। নজরে থাকবেন স্পেনের নবাগত স্ট্রাইকার মার্কোস। রবিবারই ইস্টবেঙ্গল জার্সিতে অভিষেক হবে তাঁর। বাকি দুই বিদেশি হিসেবে খেলতে পারেন মার্তি এবং হাইমে। সূত্রের খবর, লিগের দ্বিতীয় ম্যাচে তেমন পরীক্ষা নিরীক্ষা রাস্তায় হাঁটবেন না স্প্যানিশ কোচ। কারণ এই ম্যাচের পয়েন্ট নষ্ট হলে লিগ খেতাব থেকে অনেকটাই দূরে সরে যাবে ইস্টবেঙ্গল। কারণ ইতিমধ্যেই পরপর তিন ম্যাচ জিতে সুবিধাজনক জায়গায় জর্জ টেলিগ্রাফ।

প্রতিপক্ষ বিএসএস। বেহালার এই ক্লাব এই বছরই কলকাতা লিগের প্রিমিয়ার ডিভিশনে উঠে এসেছে‌। দলে আছেন আই লিগের দুই চেনা বিদেশি উইলিয়াম ওপোকু এবং ড্যানিয়েল আডো।  আছেন আরেক বিদেশি স্ট্রাইকার ব্রাইট। ভারতীয় ফুটবলারদের মধ্যে চেনামুখ লাল্টু হেমব্রম, বুধিরাম টুডু, গৌতম কুজুর, উজ্জল হাওলাদাররা। দলের কোচ ময়দানের অভিজ্ঞ এবং বড় দলকে বহুবার বেগ দেওয়া রঘু নন্দী। তাই ইস্টবেঙ্গলের জয়ে ফেরা যে অতটা সহজ হবে না, তা বলাই যায়।

Comments
Loading...