নতুন প্রজন্মকে নেতৃত্বে তুলে আনতে এবার ক্লাস নেবেন মমতা, নভেম্বরে দু’দিনের কর্মশালা

দলের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে নিজের হাতে তৈরির দায়িত্ব নিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী ১৪ ও ১৫ ই নভেম্বর নেতাজি ইনডোর স্টেডিয়ামে দলের পড়ুয়া প্রজন্মের প্রতিনিধিদের সঙ্গে মুখোমুখি কথা বলবেন তৃণমূল নেত্রী। সেখান থেকেই বেছে নেওয়া হবে, তৃণমূলের ভবিষ্যতের নেতৃত্বকে। মমতার কথায়, টাকা দিয়ে যাঁদের কেনা যাবে না, ধর্মান্ধতার আফিম দিয়ে যাঁদের ভোলানো যাবে না।

লোকসভায় তৃণমূলকে বিরাট ধাক্কা দিয়ে রাজ্যে এই প্রথমবার ১৮ টি আসন দখল করেছে বিজেপি। এবার তাদের লক্ষ্য যে নবান্ন দখল, তা বিজেপি নেতারা প্রকাশ্যেই বলছেন। এই প্রেক্ষিতে হুঙ্কার ছাড়লেন তৃণমূল নেত্রী। বিজেপিকে যে কোনওভাবেই পথ ছাড়া হবে না, তা স্পষ্ট করে দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, আগামী ১৪ এবং ১৫ ই নভেম্বর কলকাতার নেতাজি ইনডোরে রাজ্যের ছাত্র ছাত্রী প্রতিনিধিদের সঙ্গে মুখোমুখি কথা বলবেন। সেখানেই প্রশ্নোত্তরের ভিত্তিতে বেছে নেওয়া হবে আগামী নেতৃত্ব। তৃণমূল নেত্রীর বার্তা, এখন ২ বছর দিন, বাংলা আপনাকে আগামী ৫০ বছর দেখবে। মমতার কথায়, এমন লিডারশিপ তৈরি করব, ৫ বছর কেন ৫০ বছর বাংলার দিকে মুখ তুলে তাকাবে না সিপিএম-বিজেপি। যাঁরা পারবেন পর্বত জয় করতে, আমার সঙ্গে আসুন, আহ্বান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

এদিন টিএমসিপির প্রতিষ্ঠা দিবসের মঞ্চ থেকেই মমতা এই কাজের জন্য একটি কোর কমিটিও তৈরি করে দেন। তাতে থাকবেন, পার্থ চট্টোপাধ্যায়, সুব্রত বক্সী, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মলয় ঘটক, ফিরহাদ হাকিম, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায়। দুদিন রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা তরুণ প্রতিনিধিদের থাকা ও খাওয়ার ব্যবস্থা দলের তরফেই করা হবে বলেও জানিয়েছেন মমতা। পাশাপাশি কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সকলের শিক্ষাগুরু বলে সম্বোধন করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, তাঁদের সঙ্গেও একদিন কথা বলব।

Comments
Loading...