ভারতের প্রথম ‘নো ফ্লাই’ যাত্রী মুম্বইয়ের বিরজু কিশোর সাল্লা

রেকর্ড গড়তে কে না চান। খেলোয়াড় হোন বা রাজনীতিবিদ বা দিন আনা দিন খাওয়া সাধারণ মানুষ। কিন্তু মুম্বইয়ের অলঙ্কার ব্যবসায়ী বিরজু কিশোর সাল্লা অভিনবভাবে রেকর্ড বুকে তাঁর নাম তুলে ফেলেছেন। ৩৭ বছর বয়সী বিরজু ভারতের প্রথম ‘ন্যাশনাল নো ফ্লাই’ তালিকাভুক্ত ব্যক্তি, যিনি দেশের মধ্যে কোনও বিমান সফর করতে পারতে পারবেন না। মুম্বইয়ের এই অলঙ্কার ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে বিমানে অভব্যতার অভিযোগ অবশ্য নতুন কিছু নয়।
তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, ২০১৭ সালের ৩০ জুন একটি বেসরকারি বিমানংস্থার বিমানে মুম্বই থেকে দিল্লি যাওয়ার পথে বিজনেস ক্লাসের শৌচাগারের ভেতর একটি চিরকুট রেখে দেন, যাতে লেখা ছিল বিমানে বোমা আছে। এবং বিমানটিকে হাইজ্যাক করে নিয়ে যাওয়া হবে পাক অধিকৃ্ত কাশ্মীরে। এরপর বিমানটিকে আহমেদাবাদে জরুরি অবতরণ করাতে হয়। অকারণে যাত্রীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়ানোর অভিযোগে পুলিশ গ্রেফতার করে সাল্লাকে। এর আগেও বিমানে আরশোলা ছেড়ে দিয়ে বিমান সংস্থার বিরুদ্ধে হয়রানির অভিযোগ তুলেছিলেন সাল্লা। বিমানে ভুয়ো বোমাতঙ্ক ছড়ানোর অভিযোগে সংশ্লিষ্ট বিমান সংস্থা সাল্লাকে ওই সংস্থার বিমানে পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করে।
সংবাদসংস্থা সূত্রে খবর, অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রক এই ধরনের যাত্রীকে বিপদজনক ঘোষণা করে এবং পাকাপাকিভাবে সাল্লার নাম নো ফ্লাই তালিকাভুক্ত করেছে। এছাড়াও ওই অলঙ্কার ব্যবসায়ীর নামে ‘অ্যান্টি হাইজ্যাকিং’ ধারাতে মামলা রুজু করা হয়েছে। মুম্বই পুলিশের জেরার মুখে সাল্লা জানিয়েছেন, তাঁর বান্ধবী ওই বেসরকারি বিমান সংস্থায় দিল্লির অফিসে কর্মরত ছিলেন। তিনি যাতে তাড়াতাড়ি ছুটি পান সেই জন্যেই এই ভুয়ো বোমাতঙ্কের গল্প ফাঁদেন তিনি।

Comments
Loading...