নতুন করে লেখা হবে চেঙ্গিজ খাঁ- র ইতিহাস: বিজ্ঞান

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, চেঙ্গিজ খাঁ- এর আক্রমণ নয় জলবায়ু পরিবর্তনের কারণেই ধ্বংস হয়ে গিয়েছিল মধ্য এশিয়ার জনবসতি অঞ্চলগুলি।

ইতিহাসের পাতায় চেঙ্গিজ খাঁ-এর বিধ্বংসী ভাবমূর্তির অদল-বদল হতে চলেছে। আজ থেকে প্রায় এক হাজার বছর আগের ইতিহাসে যোগ হতে পারে নতুন কাহিনী। মধ্য এশিয়া থেকে মোঙ্গল, চেঙ্গিজ খাঁ- র ইতিহাকে আবার নতুন করে লিখতে হবে এমনটাই জানাল আবহাওয়া বিজ্ঞানীরা।  ইংল্যান্ডের লিঙ্কন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক এবং আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, চেঙ্গিজ খাঁ- এর আক্রমণ নয় জলবায়ু পরিবর্তনের কারণেই ধ্বংস হয়ে গিয়েছিল মধ্য এশিয়ার জনবসতি অঞ্চলগুলি।

মধ্য এশিয়ার আমুদরিয়া এবং সিরদরিয়া নদীর পলি গঠিত ভূমিতে এই জনবসতি গড়ে উঠেছিল। এযাবৎ ইতিহাসের পাতায় ত্রয়োদশ শতকে এই  জনবসতি ধ্বংস হয়ে যাওয়ার পিছনে মোঙ্গল অধিপতি চেঙ্গিজ খানের ভূমিকাই ছিল। মনে করা হত, চেঙ্গিজের আক্রমণের ফলে এখান থেকে মানুষ পালিয়ে যায় এবং ব্যাপক লুটপাটের ফলে সব কিছু ভেঙে পড়ে।

কিন্তু সম্পূর্ণ তত্ত্ব অস্বীকার করচ্ছে বর্তমান গবেষকরা। তারা জানাচ্ছে, ত্রয়োদশ শতক নাগাদ এই এলাকায় জলবায়ুর ব্যাপক পরিবর্তন হয়। ফলে সব নদী শুকিয়ে যায়। সেই কারণবশত এলাকার বাসিন্দারা তাদের বাসস্থান পরিত্যাগ করে।

বর্তমান গবেষণা আরও বলছে, মধ্য এশিয়ার এই অঞ্চলগুলি জলসেচ ব্যবস্থা থেকে অনুমান করা যায় ব্যাপক খরার কারণে গোটা এলাকা শুকিয়ে গিয়েছিল। খাদ্যশস্য উৎপাদন না হওয়ার কারণে এলাকার মানুষ বাধ্য হয়েছিল তাদের বাসস্থান ছাড়তে।

জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে একইভাবে বহু সভ্যতার ধুলিস্যাৎ হয়ে গিয়েছে, তা আমরা বারবার ইতিহাসের পাতায় প্রমাণ পেয়েছি। আগামী দিনে পরিবেশ সংক্রান্ত গবেষণার কাজ এগুলি এমনই অনেক  অজানা অধ্যায় আমাদের সামনে উঠে আসবে।

Comments
Loading...