জল্পনার অবসান, কেন্দ্রকে ১.৭৬ লক্ষ কোটি টাকা দিতে রাজি রিজার্ভ ব্যাঙ্ক, সিদ্ধান্তের তীব্র সমালোচনা রঘুরাম রাজনের

সমস্ত জল্পনার অবসান। নিজের সঞ্চয় কেন্দ্রকে দিতে অবশেষে রাজি হয়ে গেল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া। কেন্দ্রকে ১.৭৬ লক্ষ কোটি টাকা উদ্বৃত্ত বা সারপ্লাস দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। মুশড়ে পড়া অর্থনীতিকে চাঙা করতে সম্প্রতি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী একগুচ্ছ পদক্ষেপের কথা ঘোষণা করেছিলেন। সেই সূত্রেই প্রশ্ন উঠেছিল, এজন্য অর্থ আসবে কোথা থেকে? এবার রিজার্ভ ব্যাঙ্কের সঞ্চয় সরাসরি কেন্দ্রের কোষাগারে ঢোকায় এই সমস্যা মিটবে বলে মনে করছে বাণিজ্য মহল।

সোমবার আরবিআইয়ের প্রাক্তন গভর্নর বিমল জালানের নেতৃত্বাধীন কমিটির সুপারিশ মেনে আরবিআইয়ের ১.৭৬ লক্ষ কোটি টাকা উদ্বৃত্ত কেন্দ্রকে দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার সেন্ট্রাল বোর্ড। যদিও আরবিআইয়ের এই পদক্ষেপের তীব্র সমালোচনা করেছেন প্রাক্তন গভর্নর রঘুরাম রাজন। তাঁর আশঙ্কা, এই বাড়তি ভাঁড়ার সরকারের হাতে গেলে বিশ্ব বাজারে আরবিআইয়ের ক্রেডিট রেটিং কমে যেতে পারে। সেক্ষেত্রে ঋণ পাওয়ার শর্ত আরও কঠিন হয়ে যেতে পারে। বাণিজ্যিক ব্যাঙ্ককে পুঁজি যোগানো ছাড়া এই সঞ্চয়ে হাত দেওয়া উচিত নয় বলেও মনে করেন রঘুরাম রাজন।
গত পাঁচ বছরে ধীর আর্থিক বৃদ্ধি, চাহিদা তলানিতে। বেহাল অবস্থা শিল্পক্ষেত্রের। এই প্রেক্ষিতে দেশের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে এবার রেকর্ড সংখ্যক সারপ্লাস দেওয়ার কথা ঘোষণা করল আরবিআই। আরবিআই থেকে এত বড় তহবিল এর আগে কখনও সরকারি কোষাগারে ঢোকেনি। আরবিআইয়ের বিবৃতিতে জানানো হয়, ১ লক্ষ ৭৬ হাজার ৫১ কোটি টাকার মধ্যে ২০১৮-১৯ আর্থিক বছরের জন্য ১.২৩ লক্ষ কোটি টাকা যাবে আরবিআইয়ের উদ্বৃত্ত থেকে। বাকি ৫২ হাজার ৬৩৭ কোটি টাকা আরবিআইয়ের আপদকালীন তহবিল থেকে যাবে। এদিকে গত ফেব্রুয়ারি মাসে ইতিমধ্যেই ২৮ হাজার কোটি টাকা কেন্দ্রকে অন্তবর্তী ডিভিডেন্ট হিসেবে প্রদান করেছে আরবিআই।
প্রসঙ্গত, আরবিআইয়ের ভাঁড়ার থেকে অনুদান নেওয়া নিয়ে প্রাক্তন গভর্নর উর্জিত প্যাটেল ও প্রাক্তন ডেপুটি গভর্নর বিরল আচার্যের সঙ্গে সংঘাতে জড়িয়েছিল মোদী সরকার। তারপর দুজনেই ইস্তফা দেন।

Comments
Loading...