ঋণখেলাপীদের তালিকা কেন প্রকাশ করেনি আরবিআই, উর্জিত প্যাটেলকে শো-কজ দেশের তথ্য কমিশনের

স্বেচ্ছাচারী ঋণখেলাপিদের নামের তালিকা প্রকাশ করার যে নির্দেশ সুপ্রিম কোর্ট দিয়েছিল, তা মানেনি রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া। এই অভিযোগ তুলে আরবিআই গভর্নর উর্জিত প্যাটেলকে চিঠি লিখে জবাবদিহি তলব করল কেন্দ্রীয় তথ্য কমিশন বা সিআইসি (সেন্ট্রাল ইনফরমেশ্ন কমিশন)। এই কমিশনই তথ্য জানার অধিকারের বিষয়টি দেখাশোনা করে। আরবিআই-এর স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করে দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ককে নির্দেশ দিতে চাইছে কেন্দ্রীয় সরকার, এই অভিযোগে যখন সম্প্রতি তিক্ততা তৈরি হয়েছে কেন্দ্র ও আরবিআই-এর মধ্যে, সেই অবস্থায় কেন্দ্রীয় তথ্য কমিশনের আরবিআইকে এই চিঠি পাঠানোর বিষয়টি বেশ তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে।
সূত্রের খবর, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ ছিল, যাঁরা ৫০ কোটি বা তার বেশি ব্যাঙ্ক ঋণ নিয়েছেন অথচ তা এখনও শোধ হয়নি, সেই সব ব্যক্তির নামের তালিকা প্রকাশ করতে হবে আরবিআইকে। কিন্তু শীর্ষ আদালতের এই নির্দেশ আরবিআই মানেনি। তাই জানা গেছে, কেন্দ্রীয় তথ্য কমিশনের তরফে আরবিআইকে পাঠানো এই চিঠিতে আরবিআই গভর্নর উর্জিত প্যাটেলের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে, আদালতের রায় অমান্য করার জন্য কেন তাদের থেকে আর্থিক জরিমানা নেওয়া হবে না, তার কারণ দর্শাতে। তথ্য কমিশনার শ্রীধর আচারিউলু জানিয়েছেন, কমিশন মনে করে অনেক ক্ষেত্রেই আরবিআই গভর্নর ও ডেপুটি গভর্নরের বক্তব্যে কোনও মিল নেই।
যেভাবে আরবিআই-এর ওয়েবসাইটে আরটিআই তথ্য, ভিজিলেন্স রিপোর্ট, বিভিন্ন অনুসন্ধান রিপোর্ট দেওয়া হয়েছে সেখানে ত্রুটি রয়েছে। তথ্য কমিশনারের দাবি, কোনও কারণে তথ্য না পাওয়া গেলে সেন্ট্রাল পাবলিক ইনফর্মেশন অফিরাকে শাস্তি দেওয়ার দাবি ঠিক না, কারণ ওই অফিসার তাঁর উর্ধ্বতন কর্তাদের নির্দেশে কাজ করেন। তথ্য কমিশনের দাবি, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ থাকা সত্বেও তথ্য প্রকাশ না করার মূল দায় বর্তায় আরবিআই গভর্নরের উপর, তাই তাঁর কাছেই জবাব তলব করা হয়েছে। আগামী ১৬ নভেম্বরের মধ্যে তাঁকে জবাব দিতে বলা হয়েছে।
পাশাপাশি কেন্দ্রীয় তথ্য কমিশন  কেন্দ্রীয় সরকার, কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রক ও আরবিআইকে নির্দেশ দিয়েছে, আরবিআই-এর প্রাক্তন গভর্নর রঘুরাম রাজন ঋণখেলাপী ও অনাদায়ী ঋণ নিয়ে যে চিঠি কেন্দ্রকে লিখেছিলেন তাও দ্রুত প্রকাশ করতে।

Comments
Loading...