সারদা থেকে পাওয়া ৩০ লক্ষ ৬৪ হাজার টাকা ইডিকে ফেরত দিলেন শতাব্দী রায়

সারদা চিটফান্ডের থেকে পাওয়া টাকা ফেরত দিলেন তৃণমূল সাংসদ শতাব্দী রায়। সূত্রের খবর, ড্রাফটের মাধ্যমে সারদা সংস্থার কাছ থেকে নেওয়া ৩০ লক্ষ ৬৪ হাজার টাকা ইডিকে ফেরত পাঠিয়েছেন তৃণমূল সাংসদ। সারদা কাণ্ডে প্রতারিত হওয়া গরিব মানুষদের কাছে এই টাকা পৌঁছে যাক বলে ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন বীরভূমের তৃণমূল সাংসদ। তাঁর দাবি, বিভিন্ন সময়ে ‘পারিশ্রমিক’ হিসেবে সারদার কাছ থেকে টাকা পেয়েছিলেন তিনি। টিডিএস কেটে যে ৩০ লক্ষ ৬৪ হাজার টাকা পেয়েছিলেন, তা বাই পোস্টে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টোরেটকে পাঠিয়ে দিয়েছেন বলে জানান শতাব্দী রায়।
গত মাসেই সারদা মামলায় তৃণমূল সাংসদকে ইডি তলব করেছিল। তখন সংসদে অধিবেশন চলার জন্য ইডি অফিসে হাজির হতে পারেননি তিনি। সে সময় জানিয়েছিলেন, যেভাবে তৃণমূলের রাজ্যসভার প্রাক্তন সাংসদ মিঠুন চক্রবর্তী সারদার টাকা ফেরত দিয়েছিলেন, তেমনভাবে তিনিও সারদার টাকা ফিরিয়ে দিতে চান।
সারদার অধীনস্থ একটি সংস্থার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ছিলেন শতাব্দী রায়। সূত্রের খবর, সেই সময় সারদা এবং সারদা কর্ণধার সুদীপ্ত সেনের সঙ্গে শতাব্দী রায়ের আর্থিক লেনদেনের ব্যাপারে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চান তদন্তকারী অফিসাররা। কিন্তু গত মাসে সংসদের বাদল অধিবেশনে ব্যস্ত থাকায় এখন ইডি দফতরে হাজিরা দিতে পারবেন না বলে জানিয়েছেলেন শতাব্দী। বরং পারিশ্রমিক হিসেবে যে টাকা পেয়েছিলেন তা ফেরত দিতে চান বলেও জানিয়েছিলেন বীরভূমের তৃণমূল সাংসদ। এরপর সংশিষ্ট মামলায় একমাস ধরে তদন্তকারী ইডি অফিসারদের সঙ্গে টালবাহানা চলার পর ড্রাফটের মাধ্যমে তাঁর ‘পারিশ্রমিক’ হিসেবে নেওয়া সারদার টাকা ফেরত পাঠিয়েছেন শতাব্দী রায়। টাকা ফেরত প্রসঙ্গে তৃণমূল সাংসদ বলেন, তিনি নিজের কর্তব্য পালন করেছেন। চান, দ্রুত এই টাকা সারদার আমানতকারীরা ফেরত পান।

Comments
Loading...