কোভিড মোকাবিলায় ৫০০ হাউজ স্টাফ, ৫৩ মেডিক্যাল অফিসার নিচ্ছে রাজ্য, দৈনিক টেস্ট ছাপিয়ে গেল ২৫ হাজারের গণ্ডি

কোভিড মোকাবিলায় এবার চিকিৎসক বাড়ানোর পথে গেল রাজ্য। বৃহস্পতিবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে ৫০০ হাউজ স্টাফ পদে ডাক্তার নিয়োগ করার সিদ্ধান্তে সিলমোহর পড়েছে। পাশাপাশি কর্পোরেশন ৫৩ মেডিক্যাল অফিসার ও টেকনিশিয়ান নিয়োগ করবে। নিযুক্তি হবে ওয়াক ইন ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে। মুখ্যমন্ত্রী বললেন, সংক্রমণ বাড়ছে। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে টেস্টের সংখ্যাও। মানুষকে মাস্ক পরার এবং সাবধানে থাকার পরামর্শ।

করোনা মোকাবিলায় আগেই একাধিক মৌলিক পদক্ষেপ নিয়েছিল নবান্ন। দেশে প্রথম বাংলায় তৈরি হয়েছে সেফ হোম ফেসিলিটি। এবার ডাক্তার নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিল মমতা ব্যানার্জির সরকার। বৃহস্পতিবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে ৫০০ জন হাউস স্টাফ নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। এছাড়া কলকাতা কর্পোরেশনে ৫৩ জন মেডিক্যাল অফিসার এবং হেলথ টেকনিশিয়ান নিয়োগ করা হবে। শিয়রে করোনা। এই পরিস্থিতিতে গোটা নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে ওয়াক ইন ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে, যাতে অযথা সময় নষ্ট না হয়। এ ছাড়াও রাজ্য সরকার পরিচালিত হেল্প লাইন নম্বরে ফোন ধরা সহ নানা কাজে সরকারকে সহায়তা দিতে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের নেওয়া হচ্ছে।

মুখ্যসচিব এদিন জানিয়েছেন, রাজ্যে দৈনিক ২৫ হাজার টেস্ট করতে ১৫ অগাস্টের সময়সীমা ধার্য করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর বেঁধে দেওয়া সময়ের আগেই সেই লক্ষ্য পূরণ করে ফেলেছে তাঁর প্রশাসন। রাজীবা সিনহা জানান, বুধবার গোটা রাজ্যে টেস্ট হয়েছে ২৫ হাজারের বেশি। রাজ্যে মোট টেস্ট ১০ লক্ষ ছাড়িয়ে গিয়েছে বলেও জানান তিনি। পাশাপাশি মুখ্যসচিব জানিয়েছেন, এই মুহূর্তে রাজ্যে ১,১৪৪ জন সঙ্কটজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। আর গোটা রাজ্যের ৮৩ টি কোভিড হাসপাতালে মোট বেডের সংখ্যা ১১,৫৬০। রাজ্যে সুস্থতার হার বেড়ে হয়েছে ৭০.৪ শতাংশ, মৃত্যুহার ২.২ শতাংশ। মৃতদের মধ্যে ৮৭.৬ শতাংশ কোমর্বিড।

মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, অতিমারি পরিস্থিতিতে নিজে সচেতন থাকাই সবচেয়ে ভালো। তিনি বলেন, সব জায়গাতেই সংক্রমণ হচ্ছে। নবান্নে অনেকে আসছেন, তাই এখানেও সংক্রমণের ঘটনা ঘটছে। তাই সুরক্ষাবিধি মেনে চলাই একমাত্র পথ। এদিন ফের একবার মানুষকে মাস্ক পরতে ও ফিজিক্যাল ডিসট্যান্সিং বজায় রেখে জীবনযাপন করার কথা বলেন। পাশাপাশি প্রশাসনকে বলেন, যে সমস্ত বাড়িতে বয়স্ক মানুষরা থাকেন, তাঁদের উপর আলাদা করে নজর রাখার কথা।

Comments
Loading...