এবার বিজেপি? অন্য দলে গেলে বিধায়ক পদ ছেড়ে যাব, ঘনিষ্ঠমহলে শুভেন্দু! মন্ত্রিত্ব ছাড়া নিয়ে কী বললেন ……

শুক্রবার দুপুরে শুভেন্দু অধিকারীর ইস্তফার পরই রাজ্য রাজনীতিতে জল্পনা শুরু হয়েছে, কী করবেন তিনি। কেন তিনি মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফা দিলেন তা নিয়েও উত্তাল রাজনৈতিক মহল। তৃণমূলের অন্দরেও আলোচনা শুরু হয়েছে, কী করবেন শুভেন্দু অধিকারী?

সূত্রের খবর, মন্ত্রিত্ব ছাড়লেও আপাতত বিধায়ক হিসেবে থাকতে চান শুভেন্দু অধিকারী। এখনই বিধায়ক পদ তিনি ছাড়ছেন না। নন্দীগ্রামের বিধায়কের পাশাপাশি দলের সাধারণ কর্মী হিসেবে থাকবেন তিনি। ঘনিষ্ঠ মহলে শুভেন্দু জানিয়েছেন, গত কয়েকদিন ধরেই কেউ কেউ বলছিলেন, মন্ত্রিত্বে থেকে থেকে কেন আমি এই সব বলছি। তাঁদের জবাব দিতেই মন্ত্রিত্ব ছাড়লাম। ঘনিষ্ঠ মহলে শুভেন্দু জানিয়েছেন, আপাতত বিধায়ক এবং কর্মী হিসেবে তৃণমূলে থাকবেন তিনি। তাঁর দিল্লি যাওয়ার ব্যাপারে জল্পনা উড়িয়ে ঘনিষ্ঠ মহলে শুভেন্দু অধিকারী জানিয়েছেন, আজ-কালের মধ্যে দিল্লি যাওয়ার কোনও প্রশ্ন নেই।

মন্ত্রিত্ব ছাড়ার পরই শুভেন্দুকে নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়েছে, তিনি কি বিজেপিতে যাবেন? ঘনিষ্ঠ মহলে শুভেন্দু জানিয়েছেন, তাঁর অন্য কোনও দলে যোগ দেওয়া নিয়ে এখনও কিছু চূড়ান্ত নয়। তবে তিনি যদি অন্য দলে যোগ দেন, তবে তৃণমূলের বিধায়ক পদ ছেড়ে সেখানে যাবেন। তৃণমূলের বিধায়ক থেকে অন্য দলে তিনি যোগ দিতে চান না বলেই ঘনিষ্ঠ মহলে জানিয়েছেন পদত্যাগী মন্ত্রী।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ লোকসভা ভোটের পর তৃণমূলের অনেক বিধায়কই বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। তাঁরা কেউই এখনও বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেননি। যদিও তাঁদের কারও বিধায়ক পদ খারিজও হয়নি। কিন্তু এদিন শুভেন্দু অধিকারী ঘনিষ্ঠ মহলে জানিয়েছেন, মন্ত্রিত্বে থেকে তাঁর কিছু বক্তব্য নিয়ে আপত্তি তুলেছিলেন দলের কয়েকজন নেতা। সেই কারণেই তিনি মন্ত্রিত্ব ছেড়েছেন। অন্য দলে গেলে বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে সেখানে যাবেন। যদিও এদিন বিকেলে এই খবর লেখা পর্যন্ত শুভেন্দু বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেননি। প্রশ্ন উঠছে, তবে কি শীঘ্রই বিধায়ক পদও ছাড়বেন তিনি? সত্যিই কি দলের সঙ্গে তাঁর বিচ্ছেদ আসন্ন?

 

Comments
Loading...