৬ হাজার টাকা থেকে ফি বেড়ে ৭০ হাজার! বিপুল ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে ফুঁসছে এইমস

অল ইন্ডিয়া ইন্সটিটিউট ফর মেডিকেল সায়েন্স (এইমস) থেকে ডাক্তার হতে গেলে এখন ১০ গুণ টাকা বেশি খরচ করতে হবে পড়ুয়াদের। গত সপ্তাহে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক থেকে দেশের সব এইমসকে টিউশন ফি সহ বিভিন্ন খাতে খরচ বৃদ্ধির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আগে যেখানে বছরে ৬ হাজার টাকা খরচ করে এইমস-এ পড়াশোনার সুযোগ পেতেন পড়ুয়ারা, কেন্দ্রের নির্দেশ মাফিক তা বেড়ে হচ্ছে বছরে ৫০ হাজার থেকে ৭০ হাজার টাকা। দেশের সরকারি মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পড়া শেষ করতে এখন প্রায় ১০ গুণেরও বেশি অর্থ খরচ হবে পড়ুয়াদের।
কেন্দ্রের এই নির্দেশিকার বিরুদ্ধে প্রতিবাদে মুখর হয়েছে দিল্লির এইমস-এর ছাত্র সংগঠন। তাদের অভিযোগ, এইমস-এর স্বশাসনের অধিকার কেড়ে নিয়ে এবার সাধারণ পরিবারের মেধাবী ছাত্রদের শিক্ষার অধিকার হরণ করতে চাইছে কেন্দ্র। ওই নির্দেশিকার বিরোধিতা করে এইমস-এর রেসিডেন্ট ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডাঃ অমরিন্দর মালহি একটি বিবৃতিতে বলেন, আমরা যে কোনও মেডিকেল প্রতিষ্ঠানের টিউশন ফি ও রোগীদের ইউজার চার্জ বৃদ্ধির বিপক্ষে। উৎকর্ষ শিক্ষাব্যবস্থা এবং স্বাস্থ্য পরিষেবা হল দেশের ভিত্তি। কোনও ব্যক্তি,সংগঠন বা সরকারের সঙ্গে এ নিয়ে কোনওরকম আপসে আমরা রাজি নই। দেশের উন্নতি ত্বরান্বিত করতে গেলে শিক্ষিত ও প্রশিক্ষিত নাগরিক তৈরি করতে হবে। তা তখনই সম্ভব যখন, কেন্দ্রীয় ও রাজ্য, দুই সরকারই প্রত্যেক নাগরিককে উৎকর্ষ শিক্ষা ও চিকিৎসা ব্যবস্থা সুলভে দিতে পারবে। সংগঠনের সভাপতি ডাঃ অমরিন্দর মালহি নীতি নির্ধারণকারীদের যুক্তিগতভাবে বিচার করে এ বিষয়ে পদক্ষেপ করার আবেদন জানিয়েছেন।
কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের যুক্তি, রোগ নির্ণয়ের যন্ত্রপাতি থেকে ব্যবস্থা, সব কিছুরই মূল্য উর্ধ্বগামী। গত ২৫ বছরে এইমস-এ কোনও ফি বৃদ্ধি হয়নি,  তাই এবার তা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। একজন এমবিবিএস পড়ুয়ার পিছনে পাঁচবছরে আনুমানিক ১.৮ কোটি টাকা খরচ হয়। তাই প্রতিষ্ঠানগুলিকে বছরে অন্তত ৭০ থেকে ৭৫ কোটি টাকা তুলতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। দিল্লি এইমস বর্তমানে বছরে মাত্র ২ কোটি টাকা তুলতে পারে বলে স্বাস্থ্য মন্ত্রকের এক পদস্থ আধিকারিক জানান। তবে দিল্লির এইমস সাফ জানিয়ে দিয়েছে,পড়ুয়াদের কোনও ফি বাড়ানো হবে না।

Comments
Loading...