ডেঙ্গি নিয়ে উদ্বিগ্ন মুখ্যমন্ত্রী জানালেন, মৃত্যু হয়েছে ২৩ জনের, দায়ী করলেন প্রশাসনিক গাফিলতিকে

নভেম্বরের শেষেও রাজ্যে ব্যাপক ডেঙ্গি হচ্ছে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। মঙ্গলবার মালদহে প্রশাসনিক বৈঠকে তিনি নিজেই ডেঙ্গির প্রসঙ্গ উল্লেখ করে জানান, এ বছর রাজ্যে এখন পর্যন্ত ডেঙ্গিতে মোট ২৩ জনের ডেঙ্গিতে মৃত্যু হয়েছে। ডেঙ্গি মোকাবিলায় প্রশাসনিক গাফিলতি রয়েছে বলে তাঁর অভিযোগ। পুজোর সময় সতর্ক থাকলে এত মৃত্যু এড়ানো যেত বলে মুখ্যমন্ত্রীর দাবি। প্রশাসনকে দূষলেও বেসরকারি হাসপাতালের বদলে মানুষকে সরকারি স্বাস্থ্য পরিষেবায় ভরসা রাখার পরামর্শ দেন মুখ্যমন্ত্রী। সাধারণ মানুষকে বিশেষ সতর্ক থাকার জন্যও আবেদন করেন মমতা।
মঙ্গলবার সকালেই কলকাতা মেডিকেল কলেজে সুনিধি শর্মা নামে পাঁচ বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়। তার বাড়ি শ্রীরামপুরের মাহেশে। রবিবার লেক টাউনের বাসিন্দা অহর্ষি ধর (৩) নামে এক শিশু মারা যায় পার্ক সার্কাসের এক বেসরকারি শিশু হাসপাতালে। দু’জনকেই আগে পরিবারের লোকেরা স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে কলকাতায় আনা হয় তাদের। অহর্ষির ক্ষেত্রে কলকাতার ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষের অভিযোগ, তাকে কলকাতার ওই হাসপাতালে অতিরিক্ত ফ্লুইড দেওয়া হয়েছিল বলে তার মৃত্যু হয়। যদিও হাসপাতালের অধিকর্তা অপূর্ব ঘোষের দাবি, সমস্ত প্রোটোকল মেনেই চিকিৎসা হয়েছে। এদিকে মঙ্গলবার রাতে কড়েয়া থানার পুলিশ ওই বেসরকারি হাসপাতালের কাছে অহর্ষির চিকিৎসা সংক্রান্ত সমস্ত কাগজপত্র চেয়ে চিঠি পাঠিয়েছে। থানার বক্তব্য, শিশুটির পরিবার চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ করেছে বলেই এই পদক্ষেপ করা হয়েছে।
গত কয়েক বছর ধরে কলকাতা ও আশপাশের কয়েকটি জেলায় ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হচ্ছে বহু মানুষ। মৃত্যুও হচ্ছে অনেক। অভিযোগ উঠেছে, স্বাস্থ্য ভবন ডেঙ্গিতে আক্রান্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে লুকোচুরি খেলছে। সংবাদমাধ্যমকে সঠিক তথ্য দেওয়া হচ্ছে না। সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালের ডাক্তারদের ডেথ সার্টিফিকেটে ডেঙ্গি লিখতেও বারণ করা হচ্ছে। যদিও স্বাস্থ্য ভবন সেই অভিযোগ মানতে নারাজ। এবারও কলকাতা ছাড়া দমদম, লেক টাউন, উত্তর ২৪ পরগনার নৈহাটি, ভাটপাড়া, খড়দহ, দেগঙ্গা, হাবড়া, অশোকনগর প্রভৃতি এলাকায় ডেঙ্গি ছড়িয়েছে। ডাক্তাররা ডেঙ্গিতে মৃত্যুর সংখ্যা ২৩ বলে মুখ্যমন্ত্রীর দাবির সঙ্গে একমত নন। তাঁরা বলছেন, ইতিমধ্যে মৃত্যুর সংখ্যা ৬০ ছাড়িয়েছে। বিরোধীরাও দাবি করছেন, সরকার ডেঙ্গি নিয়ে প্রকৃত তথ্য চেপে যাচ্ছে। গত সপ্তাহেই এই অভিযোগে বিজেপির যুব মোর্চার পুরসভা অভিযানকে ঘিরে শহরে ধুন্ধুমার ঘটে।

Comments
Loading...