Corona: স্বাস্থ্যকর্মীদের নিম্নমানের পোশাক দেওয়ার ভুয়ো খবর, কড়া অবস্থান রাজ্যের! সোশ্যাল মিডিয়ায় মিথ্যে পোস্টের অভিযোগে কলকাতায় গ্রেফতার আরও ১

বাংলায় করোনা মোকাবিলায় যুক্ত নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের নিরাপত্তার দিকে নজর দেওয়া হচ্ছে না, তাঁদের নিম্নমানের জিনিস দেওয়া হচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া এমনই ভুয়ো খবরের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করছে রাজ্য প্রশাসন। সোমবার রাজ্যের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দফতরের অফিশিয়াল ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে একটি পোস্টে জানানো হয়, উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্মী এবং জরুরি বিভাগের নার্সকে নিম্নমানের পোশাক সরবরাহ করা হয়েছে বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় যে দুটি ছবি ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে, তা বিকৃত করা এবং সর্বেব মিথ্যা। যারা এই ধরনের গুজব ছড়াচ্ছে শীঘ্রই তাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করা হবে। নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের নিরাপত্তার বিষয়ে স্বাস্থ্য দফতরের পক্ষে কোনও ঢিলেমি নেই বলে জানানো করা হয় ট্যুইটে।

রাজ্যে করোনা পরিস্থিতিতে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো ছবি বা খবর প্রকাশ করলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে গত সপ্তাহেই হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন মমতা ব্যানার্জি।
বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালের এক চিকিৎসক করোনা আক্রান্ত হয়েছেন, এমন ভুয়ো ছবি এবং খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার জন্য ইতিমধ্যেই বরানগরের এক তরুণীকে গ্রেফতার করেছে কলকাতা পুলিশ। শুধু তাই নয়, ভিন রাজ্যের ভিডিও কলকাতার বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারের অভিযোগে বিজেপি নেতা অনুপম হাজরার বিরুদ্ধেও এফআইআর দায়ের হয়েছে। নবান্ন সূত্রে খবর, কলকাতা পুলিশ, সিআইডি এবং রাজ্য পুলিশকে ভুয়ো খবরের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।
মমতা ব্যানার্জি কয়েক দিন আগে নবান্নের সাংবাদিক বৈঠক থেকে এই অপপ্রচারের বিরুদ্ধে কড়া বার্তা দিয়েছিলেন। তাঁর বক্তব্য, রাজ্যে করোনার মতো মহামারি ঠেকাতে যখন লাগাতার কাজ করে যাচ্ছেন চিকিৎসক,  স্বাস্থ্যকর্মীরা, রাজ্য সরকার সব রকম উদ্যোগ নিয়েছে এই মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে তখন, এক শ্রেণির মানুষ, সংগঠন ও মিডিয়া লাগাতার অপপ্রচার চালাচ্ছে। এই ভুয়ো এবং মিথ্যে প্রচারের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ করার হুঁশিয়ারি তিনি আগেই দিয়েছেন। এবার রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরও সোশ্যাল মিডিয়ায় এই অপপ্রচার নিয়ে সজাগ হল।

প্রসঙ্গত, রবিবার একটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে খবর ছড়িয়ে পড়ে, নিউ আলিপুর এলাকায় ১৫ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। পোস্টে এও দাবি করা হয়, রাজ্য সরকার পুরো বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে। এই মিথ্যা তথ্য আসা মাত্রই কারা এই ঘটনার পিছনে রয়েছে, খোঁজ শুরু করে নিউ আলিপুর থানা। এই ঘটনায় বেহালার জ্যোতিষ রায় রোড থেকে পল্লবী শিবানী নামে এক মহিলাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

Comments
Loading...