হাওড়ার হোটেল বলে পুরনো বিদেশি ম্যাগাজিনের কুকুরের মাংসের ছবি, altnews এর ফ্যাক্ট চেকে পর্দাফাঁস শিলিগুড়ির পোর্টালের খবরের

সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে ফেক নিউজের বাড়বাড়ন্ত। ফেসবুকে, হোয়াটসঅ্যাপে ঘুরে বেড়ানো হাজার হাজার ‘খবরের’ কোনটা যে ঠিক আর কোনটা ভুল, তা বের করার সময় আম জনতার কোথায়? কিন্তু হোয়াটসঅ্যাপে ছড়িয়ে পড়া একটি আপাত নিরীহ খবর, কখন যে কোথায় অশান্তির আগুন জ্বালায়, তা ঠাওর করতে কালঘাম ছুটছে প্রশাসনের। এই প্রেক্ষিতে সামনে এল গত বছর হইচই ফেলে দেওয়া একটি দাবি ও তার স্বপক্ষে কয়েকটি ছবির আসল কাহিনী। ভুয়ো খবরের পর্দাফাঁস করল নিউজ পোর্টাল altnews।
গত বছর কলকাতা ও পাশ্ববর্তী এলাকায় যখন ভাগাড়ের মাংস নিয়ে বিতর্ক চলছিল, সেই সময় সোশ্যাল মিডিয়া ছেয়ে যায় একটি পোস্টে। ‘দ্য শিলিগুড়ি মিরর’ নামে একটি ফেসবুক পেজ গত ১০ ই মে, ২০১৮ কয়েকটি ছবি দিয়ে দাবি করে, কলকাতার পাশে হাওড়ার কোনও এক অশোকা হোটেলে রেড করে রান্নাঘর থেকে কুকুরের মাংস পাওয়া গিয়েছে।

পোস্টটি ২৭ হাজারেরও বেশি শেয়ার হয়েছে। প্রাউড টু বি অ্যান ইন্ডিয়ান নামের পেজেও পোস্টটি শেয়ার করা হয়েছে। কেবলমাত্র এই পেজ থেকেই পোস্টটি ৫৭০০ বার শেয়ার হয়েছে। একাধিক ব্যক্তিকেও altnews খুঁজে বের করেছে, যাঁরা নিজেদের অ্যাকাউন্ট থেকে জ্ঞাতার্থে পোস্টটি শেয়ার করেছেন।

একই ধরনের ‘খবর’ ট্যুইটারেও ছড়িয়েছে বলে জানিয়েছে altnews।

এই খবরগুলো মূলত ২০১৮ র মে মাসের। ফ্যাক্ট চেক করার সময় সুনির্দিষ্ট কি-ওয়ার্ডের মাধ্যমে altnews সেই সময়ের সংবাদপত্রের প্রতিবেদন খতিয়ে দেখেছে। দেখা গিয়েছে, কলকাতা পুরসভার অভিযানে শহরের বেশ কয়েকটি পাইস হোটেল থেকে বাসি মাংস ধরা পড়েছে। তার মধ্যে একটি হাওড়ার অশোকা হোটেল। সেই হোটেলের রান্নাঘর থেকে প্রচুর পরিমাণ পচা মাছ ও মাংস উদ্ধার হয়। পুরসভার ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞরা বলেন, অশোকা হোটেল থেকে বাজেয়াপ্ত মাছ-মাংসে ছাতা পড়ে গিয়েছিল। এখানে লক্ষ্য করার মতো বিষয় হল, কোথাওই কুকুরের মাংসের উল্লেখ নেই।
altnews এর ফ্যাক্ট চেক জানাচ্ছে, দ্য শিলিগুড়ি মিররে যে ছবি দিয়ে খবর দেওয়া হয়েছিল, তা সর্বৈব মিথ্যা। ফেক নিউজ।
দ্য শিলিগুড়ি মিরর যে ছবিগুলো হাওড়ার হোটেলের বলে দাবি করেছিল, তার প্রথম ছবি, যাতে দেখা যাচ্ছে, সারি দিয়ে ছাল ছাড়ানো কুকুর ঝোলানো। তা ২০১২ সালে ভিয়েতনামে নির্বিচারে কুকুর-বিড়াল হত্যা বন্ধ করার আবেদন জানিয়ে change.org এর করা প্রতিবেদন। এই ছবিটিকেই ২০১৮ র কলকাতা বলে চালানো হয়েছে।

altnews ফ্যাক্ট চেকে রিভার্স সার্চ করে দেখেছে, হাওড়ার হোটেলের বেসমেন্টে এক দঙ্গল কুকুরকে আটকে রাখা হয়েছে বলে যে দাবি পোস্টে করা হয়েছে, সেই ছবিটি সাউথ ইস্ট এশিয়ায় কুকুরের মাংস শীর্ষক প্রতিবেদন থেকে নেওয়া। প্রতিবেদনটি প্রকাশ হয়েছিল ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বর মাসে। কলকাতার সঙ্গে এর কোনও যোগ খুঁজে পাওয়া যায়নি।

রিভার্স সার্চের মাধ্যমে তৃতীয় ছবিরও সত্যতা যাঁচাই করেছে altnews। কুকুরের কঙ্কালের ছবিটি ২০১২ সালে একটি ইরানি নিউজ পোর্টালে প্রকাশিত হয়েছিল। খবরটি ছিল, ইরানের মাশহাদ থেকে বেআইনি মাংস উদ্ধারের। সেই ছবিতেও হাওড়ার হোটেল বলে চালানো হয়েছে।

Comments
Loading...