ফড়নবিসের ৮০ ঘণ্টার মুখ্যমন্ত্রিত্ব ছিল বিজেপির পরিকল্পিত নাটক, ফাঁস করলেন দলীয় সাংসদ, জানালেন, কোষাগারের ৪০ হাজার কোটি টাকা সুরক্ষিত রাখতেই এই চাল

মহারাষ্ট্রে ফড়নবিস সরকারের ৮০ ঘণ্টার শাসন ছিল বিজেপির পরিকল্পনামাফিক নাটক। মহারাষ্ট্রের বিজেপি সরকারের হাতে থাকা ৪০ হাজার কোটি টাকা যাতে কেন্দ্রের হাতে সুরক্ষিত থাকে তাই এই নাটক করেছিলেন তাঁরা। এমনটাই দাবি বিজেপি সাংসদ অনন্ত কুমার হেগড়ের। নিজের দলের সাংসদের এ হেন মন্তব্যে প্রবল অস্বস্তিতে পড়েছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।
শনিবার উত্তর কন্নড়ের ইয়াল্লাপড় কেন্দ্রের উপনির্বাচনের প্রচারে গিয়েছিলেন অনন্তকুমার হেগড়ে। নির্বাচনী সভাতেই তিনি ব্যাখ্যা দেন, কেন মহারাষ্ট্রে তাঁরা সরকার গঠন নিয়ে ‘নাটক’ করেছিলেন। হেগড়ের কথায়, মহারাষ্ট্রে আমারা সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ করতে পারব না জানা সত্ত্বেও কেন সরকার গড়েছিলাম তা নিয়ে অনেকে প্রশ্ন তুলেছেন। তাঁদের বলে রাখি, ৪০ হাজার কোটি টাকা ছিল মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর নিয়ন্ত্রণে। শিবসেনা-এনসিপি-কংগ্রেস জোট সরকার গড়লে এই টাকা আর উন্নয়নের কাজে ব্যবহার হত না। তা কোথায় চলে যেত, জানি না। ওই টাকা যাতে সুরক্ষিত থাকে, তার জন্যই এটা করা হয়েছিল। তিনি জানান,পরিকল্পনামাফিক এই নাটক করে ফের কেন্দ্রের হাতে ৪০ হাজার কোটি টাকা ফিরিয়ে দিয়েছেন ফড়নবিস।
এই তথ্য প্রকাশ্যে আসতেই তোলপাড় শুরু হয়ে গিয়েছে। হেগড়ের দাবি মানতে নারাজ ফড়নবিস। তিনি বলেন, এটি সম্পূর্ণ ভুয়ো তথ্য। তাঁর দ্বিতীয়বারের মুখ্যমন্ত্রিত্বকালে কোনও নীতিগত সিদ্ধান্তই নেওয়া হয়নি। তিনি বলেন, চাইলে অর্থ দফতর তদন্ত করে দেখতে পারে।
এ ব্যাপারে ইতিমধ্যেই শিবসেনা, কংগ্রেস ও এনসিপির প্রশ্নের মুখে পড়েছে বিজেপি। নতুন সরকার এর তদন্তের নির্দেশ দিতে পারে বলে খবর।

Comments
Loading...