সেনাপ্রধান নারবানে: পাক অধিকৃত কাশ্মীর আক্রমণে তৈরি ভারতীয় সেনা, অপেক্ষা কেবল নির্দেশের

নির্দেশ পেলে পাক অধিকৃত কাশ্মীর আক্রমণ করতে তাঁরা তৈরি, জানালেন নয়া সেনাপ্রধান এম এম নারবানে। দেশের ২৮ তম সেনাপ্রধান জানান, পাক অধিকৃত কাশ্মীর নিয়ে বিভিন্ন পরিকল্পনা রয়েছে তাঁদের। যে কোনও পদক্ষেপের জন্য সদা প্রস্তুত ভারতীয় সেনা।
সম্প্রতি ইংরেজি সংবাদমাধ্যম এনডি টিভি-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সেনাপ্রধান নারবানেকে প্রশ্ন করা হয়, পাক অধিকৃত কাশ্মীরে  কোনও পদক্ষেপের জন্য ভারতীয় সেনা কতটা প্রস্তুত। জবাবে নারবানে বলেন, দেশের সব সীমানাতে সেনা মজুত রয়েছে। জম্মু-কাশ্মীরেও তাই। আমাদের নির্দিষ্ট পরিকল্পনা রয়েছে। প্রয়োজনে সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হবে। সেনাপ্রধান আরও বলেন, নির্দেশ মাফিক যে কোনও কাজ সাফল্যের সঙ্গে করতে আমরা প্রস্তুত। এই পরিকল্পনার মধ্যে কি পাক অধিকৃত কাশ্মীরে বড় ধরনের হানার কথাও রয়েছে? এর উত্তরেও  নারবানে বলেন, ‘এরকম নির্দেশই আসা উচিত।’
গত মঙ্গলবার নয়া সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পরেই পাকিস্তানের উদ্দেশে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছেন নারবানে। পাক মাটিতে থাকা সন্ত্রাসবাদীদের কড়া জবাব দিতে সেনা তৈরি বলে তিনি মন্তব্য করেন।
প্রসঙ্গত, মাস কয়েক আগে লোকসভায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মন্তব্য করেছিলেন, জম্মু-কাশ্মীর মানে তিনি পাক অধিকৃত কাশ্মীরও বোঝেন।  মোদী সরকারের জমানায় ২০১৬ সালে উরি সেনা ছাউনিতে জঙ্গি হানার পর বালাকোট সার্জিকাল স্ট্রাইক এবং ২০১৯ সালে পুলওয়ামা জঙ্গি হামলার জবাবে এয়ার স্ট্রাইক করেছে ভারত। গত বছর ফেব্রুয়ারিতে পাকিস্তানে জঙ্গি সংগঠন জৈশ-ই-মহম্মদের ঘাঁটিতে আক্রমণ করা হয়। এদিকে জম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহৃত হওয়ার পর গত সেপ্টেম্বরে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ পাকিস্তানকে খোলাখুলি হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন। তাঁর কটাক্ষ ছিল, পাক প্রধানমন্ত্রী তাঁর দেশের বাসিন্দাদের বারণ করেছেন জম্মু-কাশ্মীর সীমান্তে যেতে। এটা খুবই ভালো কথা। কারণ, তাঁরা একবার এলে আর পাকিস্তানে ফিরে যেতে পারবেন না। রাজনাথ সিংহের কথায়, ১৯৬৫ কিংবা ১৯৭১ সালের মতো ভুল যেন পাকিস্তান না করে। এবার নয়া সেনাপ্রধানেরও হুঁশিয়ারি, অবৈধ অনুপ্রবেশ যাতে না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখুক পাকিস্তান। যে কোনও পরিস্থিতিতে জবাব দিতে তৈরি ভারতীয় সেনা।

Comments
Loading...