স্বেচ্ছাসেবীর শরীরে প্রতিক্রিয়া! সাময়িক স্থগিত অক্সফোর্ডের করোনা টিকার চূড়ান্ত ট্রায়াল

করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন তৈরিতে সারা বিশ্বকে আশা জুগিয়েছিল অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রোজেনেকা। কিন্তু আচমকা সেই লড়াইয়ে বড় বাধা। স্বেচ্ছাসেবীর শরীরে ভ্যাকসিন দেওয়ার পর অপ্রত্যাশিত পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেওয়ায় সাময়িকভাবে স্থগিত হয়ে গেল অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রোজেনেকার তৈরি করোনা ভ্যাকসিনের থার্ড ফেজ ট্রায়াল।

মঙ্গলবার রাতে অ্যাস্ট্রোজেনেকার তরফ থেকে জানানো হয়েছে, অজ্ঞাত কারণে এক ভলান্টিয়ার অসুস্থ হয়ে পড়ায় টিকার ট্রায়াল সাময়িকভাবে বন্ধ করা হচ্ছে। টিকা নেওয়ার পর এক স্বেচ্ছাসেবী জ্বরে কাবু হয়ে পড়েছেন। তাই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল এখন বন্ধ করা হয়েছে। অ্যাস্ট্রোজেনেকা জানাচ্ছে, এটা একটা রুটিন প্রক্রিয়া। কোনও স্বেচ্ছাসেবকের শরীরে টিকার বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিলে ট্রায়াল বন্ধ করে দেওয়া হয়। এরপর সংস্থার রিভিউ কমিটি পুনরায় সেই ভ্যাকসিনের প্রভাব খতিয়ে দেখে। তাই তাঁদের ছাড়পত্র মিললে ফের শুরু হবে ভ্যাকসিন ট্রায়ালের কাজ। তবে অ্যাস্ট্রাজেনেকার তরফে এও দাবি করা হয়েছে, অনেক সময় দুর্ঘটনাবশত এই ধরনের অসুস্থতা দেখা দিতে পারে। একটি ক্ষেত্রেই কেন এমন হল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

নেহাতই দুর্ঘটনা নাকি ভ্যাকসিনেই কোনও সমস্যা? তা স্পষ্ট না হওয়া পর্যন্ত অক্সফোর্ডের তৈরি ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়াল শুরু করা হবে না।

কয়েকটি দেশে এই টিকার প্রথম এবং দ্বিতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালে সাফল্য মিলেছে। শুধু আমেরিকাতেই প্রায় ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবকের শরীরে এই ভ্যাকসিনটি দেওয়ার কথা ছিল। ভারতেও সেরাম ইন্সটিটিউটের তত্ত্বাবধানে ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শুরু হয়। সবই আপাতত বন্ধ রাখা হচ্ছে।

Comments
Loading...