বিজেপির সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়া নিয়ে সংশয়ের সুর রাম মাধবের গলায়, আরএসএস কি মোদীর জয়যাত্রা নিয়ে নিশ্চিত নয়, জল্পনা তুঙ্গে

আব কি বার, চারশো পার। মোদী-অমিত শাহদের দাবি, গতবারের আসন সংখ্যা ছাপিয়ে বিজেপি এবার একাই ৪০০-র বেশি আসন পাবে। এই আবহে বিজেপির একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়া নিয়েই সংশয়ের সুর বিজেপির সাধারণ সম্পাদক রাম মাধবের গলায়। বললেন, ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি ২৭১ টি আসন জিততে পারলেই খুশি হবে সবাই। তাহলে কি মোদী-অমিত শাহের আগ্রাসী প্রচার সত্ত্বেও জয়ের ব্যাপারে নিশ্চিত হতে পারছে না আরএসএস? তাই কি সংশয়ের সুর নাগপুর ঘনিষ্ঠ বিজেপির এই শীর্ষ নেতার গলায়?

শনিবার দিল্লিতে ‘Bloomberg’এর নিউজ এডিটরকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রাম মাধব বলেন, ২০১৯ সালে বিজেপির ক্ষমতায় আসতে হলে জোট শরিকদের সমর্থন দরকার হতে পারে। পঞ্চম দফা লোকসভা ভোটের একদিন আগে দেওয়া ওই সাক্ষাৎকারে বিজেপির শীর্ষ নেতা বলেন, তাঁরা ২৭১ টি আসন পেলেই খুশি।
২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির এনডিএ জোট ৩৩৬ টি আসন জিতেছিল, যার মধ্যে বিজেপি একাই ২৮২ টি সিটে জয়লাভ করে। কিন্তু শেষ ৫ বছরে নিজেদের সাফল্য তুলে ধরে বিভিন্ন নির্বাচনী সভায় অমিত শাহরা যখন ঘোষণা করছেন, গত বারের রেকর্ড ভেঙে আরও বড় ব্যবধানের জয়লাভ করবে বিজেপি, তখন দলের সাধারণ সম্পাদক জানালেন ২৭১ আসন জিতলেই তাঁরা খুশি! তাহলে কি বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের ওপিনিয়ন পোলে বিজেপির যে ভরাডুবির পূর্বাভাস দেওয়া হচ্ছে, তাকেই পরোক্ষে মান্যতা দিলেন বিজেপির সাধারণ সম্পাদক রাম মাধব?  Bloomberg-এর সাক্ষৎকারে রাম মাধব জানিয়েছেন, বাংলা-ওড়িশা সহ উত্তর-পূর্ব ভারতে বিজেপির ভালো ফলের ব্যাপারে আশাবাদী বিজেপি। তবে দক্ষিণ ভারত নিয়ে সংশয়ে বিজেপির সাধারণ সম্পাদক। দক্ষিণ ভারত নিয়ে নিজেরা আরও উদ্যোগী হলে, ফলাফল সম্পর্কে নিশ্চিত হতে পারতেন বলেও মন্তব্য করেন আরএসএস ঘনিষ্ঠ বিজেপি নেতা রাম মাধব। অর্থাৎ, লোকসভা ভোটের ফল নিয়ে বিজেপির সাধারণ সম্পাদক রাম মাধব যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, সভাপতি অমিত শাহের মতো উচ্চাশা রাখছেন না, তা শনিবারের সাক্ষাৎকার থেকেই পরিষ্কার।
২০১৯ সালে দ্বিতীয়বার মোদী সরকার ক্ষমতায় এলে ভারত-পাক সম্পর্কের উন্নতি হবে বলেও সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন রাম মাধব।

Comments
Loading...