অযোধ্যায় সেনা পাঠান, বিজেপি যে কোনও পর্যায়ে যেতে পারে, সুপ্রিম কোর্টে আর্জি অখিলেশের

ফের উত্তেজনা অযোধ্যায়। রাম মন্দির নির্মাণের দাবি নিয়ে অযোধ্যা যাত্রা শুরু করেছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদসহ বিভিন্ন সংগঠন। এই পরিস্থতিতে অযোধ্যায় সেনা পাঠানোর আর্জি জানালেন উত্তর প্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এবং সমাজবাদী পার্টির নেতা অখিলেশ যাদব।
অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণে সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের মতো সংগঠন ও হিন্দুত্ববাদী কর্মীরা সপ্তাহের শেষে অযোধ্যায় বিশাল সমাবেশের প্রস্তুতি নিচ্ছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে অযোধ্যায় সেনাবাহিনী পাঠানোর জন্য সুপ্রিম কোর্টকে আবেদন জানালেন উত্তর প্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী আখিলেশ যাদব। বললেন, বিজেপি যে কোনও পর্যায়ে যেতে পারে।
শিব সেনা প্রধান উদ্ভব ঠাকরেও রবিবার অযোধ্যা যাত্রা করছেন। রবিবার তাঁর অযোধ্যা যাত্রার জন্য ইতিমধ্যেই পুণের জুনার তহসিল, যেখানে শিবাজি জন্মগ্রহণ করেছিলেন সেখান থেকে মাটি সংগ্রহ করেছেন। সেই মাটি নিয়েই উদ্ধব যাবেন অযোধ্যায়। অযোধ্যায় হিন্দু সংগঠনগুলির আসন্ন মহাসমাবেশ ঘিরে সতর্ক প্রশাসন। তৈরি হয়েছে চূড়ান্ত উত্তেজনার পরিস্থিতি। যে কোনও ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ইতিমধ্যেই সেখানে বেশ কয়েকজন উচ্চপদস্থ থেকে মিড-লেভেল পুলিশ অফিসার, ১৬০ জন ইন্সপেক্টর, ৭০০ কনস্টেবল, ৪২ কোম্পানি সশস্ত্র পুলিশ র‍্যাফ, অ্যান্টি টেররিস্ট স্কোয়াডের (এটিএস) কমান্ডো মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া আকাশপথে নজরদারি চালানোর জন্য থাকছে ড্রোন-ও। সমাজবাদী পার্টির প্রধান আখিলেশ যাদব শুক্রবার এক অনুষ্ঠানে বলেছেন, ‘বিজেপি সুপ্রিম কোর্ট বা সংবিধানে বিশ্বাস করে না। ওই দলটি যে কোনও পর্যায়ে যেতে পারে। উত্তর প্রদেশে, বিশেষ করে অযোধ্যাতে এখন যা পরিস্থিতি তাতে সুপ্রিম কোর্টের উচিত সেদিকে বিশেষ লক্ষ্য রাখা এবং প্রয়োজনে এখনই সেনা পাঠানো।
রাম মন্দির মামলার শুনানি জানুয়ারি পর্যন্ত মুলতুবি করে করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। গত মাসে শীর্ষ আদালত এই রায় ঘোষণার পর থেকে মন্দির ইস্যুতে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের ওপর চাপ ক্রমশ বাড়ছে। শিবসেনার মতো শরিক দলের পাশাপাশি এ নিয়ে সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করছে আরএসএসও। প্রয়োজনে অর্ডিন্যান্স জারি করে অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণের দাবিও উঠেছে। রাম মন্দির বিগত কয়েক দশক ধরে দেশের অন্যতম আলোচনার বিষয়, বিশেষ করে গত কয়েকটি নির্বাচনের প্রধান ইস্যু ছিল। রাম মন্দির নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পর এই সংক্রান্ত আইন তৈরির দাবি উঠতে শুরু করেছে। এই দাবি নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় সভা-সম্মেলনও করেছে হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলি। তাদের দাবি, যত দ্রুত সম্ভব আইন করে রাম মন্দির তৈরির কথা ঘোষণা করুক মোদী সরকার।
এবার সেই বিল আনা হবে বলে জানালেন বিজেপি সাংসদ। সাংসদ রবিন্দর কুশওয়াহা শুক্রবার জানিয়েছেন, রাম মন্দির তৈরির জন্য বিল আনা হচ্ছে আগামী লোকসভা অধিবেশনেই। রাজ্যসভায় বিল পাশ না হলে অর্ডিন্যান্স আনা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। সালেমপুরের সাংসদ রবিন্দর আরও বলেন, ‘আগামী ১১ ডিসেম্বর শুরু হচ্ছে হচ্ছে লোকসভার শীতকালীন অধিবেশন। সেখানেই পেশ হবে রাম মন্দিরের বিল।’ তিনি আরও বলেন, ‘লোকসভায় বিল পাশ হয়ে যাবে। তবে রাজ্যসভ্যায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা না থাকায় নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না।’

Comments
Loading...