বিজেপির উত্তরকন্যা অভিযানে শিলিগুড়ি ধুন্ধুমার, অস্বাভাবিক মৃত্যু, উত্তরবঙ্গ বনধের ডাক

বিজেপি যুব মোর্চার উত্তরকন্যা অভিযান ঘিরে ধুন্ধুমার! বিজেপি কর্মী ও পুলিশের দফায় দফায় সংঘর্ষ। বিজেপির অভিযোগ, পুলিশের মারে এক কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। প্রতিবাদে মঙ্গলবার উত্তরবঙ্গ বনধ ডাকার কথা ভাবছেন গেরুয়া নেতৃত্ব। 

নবান্ন অভিযানের পর উত্তরবঙ্গে উত্তরকন্যা অভিযানের ডাক দিয়েছিলেন দিলীপ ঘোষ, কৈলাস বিজয়বর্গীয়রা। সোমবার সেই অভিযানে দফায় দফায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে বিজেপি কর্মীদের। পুলিশকে লক্ষ করে একদিক থেকে পাথর ছোঁড়া হতে থাকে, পাল্টা জল কামান চালায় পুলিশ, সেই সঙ্গে কাঁদানে গ্যাসের শেল। বিজেপি কর্মীরা নৌকাঘাট ও জলপাই মোড়ের মাঝে প্রথম ব্যারিকেড ভেঙ্গে ফেলে। এগোতে থাকে জলপাই মোড়ের দিকে। তক্ষণ পুলিশ জল কামান চালায়। তাতে ছত্রভঙ্গ হয়ে পড়েন বিজেপি কর্মীরা।

এক বিজেপি কর্মীর উপর পুলিশ বেধড়ক লাঠিচার্জ করে বলে অভিযোগ। মাথায় চোট পান উলেন রায় নামে ওই কর্মী। উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা। এদিকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের দাবি, পুলিশের ছোড়া পেলেট গানের আঘাতে মৃত্যু হয়েছে উলেন রায়ের। পুলিশের সঙ্গেই তৃণমূলের দুষ্কৃতিরা মিশে ছিল বলেও অভিযোগ তাঁর। বিজেপি কর্মীর অস্বাভাবিক মৃত্যুর কারণ ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে বলে পুলিশ সূত্রে খবর। 

রাজ্য পুলিশ জানিয়েছে, বিক্ষোভ সামাল দিতে লাঠি বা অস্ত্র ব্যবহার হয়নি। শুধুমাত্র জল কামান ও কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করা হয়েছে।

এই ইস্যুতে বিজেপিকেই পাল্টা বিঁধেছে তৃণমূল। সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার মৃত্যুর প্রতি শোক প্রকাশ করেছেন। পাশাপাশি তাঁর আক্রমণ, বিজেপি বন্দুকের রাজনীতিতে দক্ষ। প্রচার পেতেই এসব করছে বিজেপি।

Comments
Loading...