কেন্দ্রের সমালোচনা করে কবিতা লিখলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, পোস্ট করলেন ট্যুইটার অ্যাকাউন্টে

মাঠে-ময়দানে, জনসভায় প্রতিদিনই কোনও না কোনও ইস্যুতে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু যে তিনটি ইস্যুতে গত কয়েক বছর ধরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ধারাবাহিকভাবে সরব হয়েছেন, তার একটি আধার কার্ড। অন্য দুটি নোট বাতিল এবং জিএসটি। আধার নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বারবারই অভিযোগ করেছেন, মানুষের ব্যক্তিগত নিরাপত্তায় হস্তক্ষেপ করছে নরেন্দ্র মোদীর সরকার। নিজের আধার নম্বর ব্যাঙ্কে বা মোবাইল কোম্পানিকে দেবেন না বলেও জানিয়েছেন। এবার আধার কার্ড নিয়ে কবিতে লিখলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি এই কবিতায় ভারাভারা রাওসহ বুদ্ধিজীবীদের গ্রেফতারির প্রসঙ্গেও সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। আর বৃহস্পতিবার বিকেলে সেই কবিতা পোস্ট করলেন নিজের ট্যুইটার অ্যাকাউন্টে।
এর আগেও অনেক রাজনৈতিক ইস্যুতে কবিতা লিখেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার তাঁর প্রতিবাদী কলম ধরলেন আধার ইস্যুতে। বৃহস্পতিবার বিকেলে ট্যুইটারে ‘উঁকি অনলাইন’ নামে একটি কবিতা পোস্ট করেন মুখ্যমন্ত্রী। আধার নিয়ে বারবারই অভিযোগ উঠেছে, বিভিন্ন ক্ষেত্রে আধারকে বাধ্যতামূলক করে সরকার আসলে মানুষের ব্যক্তি পরিসরে নজর রাখতে চাইছে। উঁকি মারতে চাইছে মানুষের ড্রইংরুমে, বেডরুমে। আধারে যে দেশের মানুষের ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষিত নয়, সেই অভিযোগও উঠেছে বারবার। বর্তমানে এই সংক্রান্ত মামলা সুপ্রিম কোর্টে বিচারাধীন। নিজের কবিতাতেও মুখ্যমন্ত্রী এই বিষয়টি’কেই তুলে ধরেছেন। লিখেছেন ‘ঝুঁকিতে ঝুঁকিতে উঁকি, ঢুকে পড়েছে একেবারে অন্দরমহলে! কোনও রাখঢাক নেই একেবারে উলঙ্গ উঁকি। তত্ত্ববধানে মরিচীকা।’

 

লোকসভা ভোট যত এগিয়ে আসছে, ততই বিভিন্ন ইস্যুতে কেন্দ্রকে চেপে ধরতে চাইছেন তৃণমূল নেত্রী। দেশের সমস্ত বিরোধী দলকে এক মঞ্চে এনে ২০১৯ এর লোকসভা ভোটে বিজেপিকে বেকায়দায় ফেলতে যথেষ্ট তৎপর মুখ্যমন্ত্রী। নোট বাতিলের পর বাজারে থাকা ৯৯.৩ শতাংশ টাকাই ব্যাঙ্কে ফিরে এসেছে, বুধবার রিজার্ভ ব্যাঙ্কের তরফে এই তথ্য জানানোর পরই, কেন্দ্রকে আর এক দফা কটাক্ষ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রশ্ন তোলেন, কালো টাকা তা হলে গেল কোথায়? বকলমে কি কালো টাকার মালিকদের নিজেদের টাকা সাদা করার সুযোগ করে দিতেই নরেন্দ্র মোদী সরকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল? এর আগেও আধার ইস্যুতে কেন্দ্রকে একাধিকবার বিঁধেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এবার কবিতার মাধ্যমে নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করলেন তিনি।

Comments
Loading...