পরিবারের লোকেদের পর স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করাবেন দিলীপ ঘোষ!

ক’দিন আগেই স্বাস্থ্য সাথীকে ভাঁওতাবাজি আখ্যা দিয়েছিলেন দিলীপ

পরিবারের লোকজনের পর এবার মমতা সরকারের স্বাস্থ্য সাথী কার্ড করাচ্ছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। ক’দিন আগেই স্বাস্থ্য সাথীকে ভাঁওতাবাজি আখ্যা দিয়েছিলেন দিলীপ। কিন্তু তারপরই জানা যায় দিলীপের পরিবারের লোকেরাই দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে লাইন দিয়ে স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করিয়েছেন। এবার জানা গেল তিনিও করাবেন। 

মমতা ব্যানার্জিকে নানা ইস্যুতে তীব্র আক্রমণ করতে অভ্যস্ত বিজেপি। ব্যতিক্রম নন দিলীপ ঘোষও। ক’দিন আগেই জনসভায় দাঁড়িয়ে দিলীপ ঘোষ স্বাস্থ্য সাথীকে ভাঁওতাবাজি বলে আখ্যা দিয়েছিলেন। সেই প্রেক্ষাপটে দিলীপের এই ঘোষণায় কৌতূহল তৈরি হয়েছে। সম্প্রতি বিজেপি রাজ্য সভাপতির পরিবারের সদস্যরাই স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড করিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। ঝাড়গ্রামের গোপীবল্লভপুরে দিলীপের বাড়ির লোকজন লাইনে দাঁড়িয়ে কার্ড নিয়েছেন। সূত্রের খবর, দিলীপ ঘোষের ভাই, গোপীবল্লভপুর ২ নম্বর মণ্ডল সভাপতি হীরক ঘোষ স্থানীয় পঞ্চায়েত অফিসে দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে হাজির ছিলেন। এবার ভাইয়ের পথ ধরে স্বাস্থ্য সাথীর সুবিধাভোগীর তালিকায় নাম তুলতে চান দিলীপ ঘোষ। 

এই প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে বিজেপির রাজ্য সভাপতি বলেন, তিনি স্বাস্থ্য সাথীর বিরোধী নন, শুধু তৃণমূল সরকারের বিরোধী। তাই সুযোগ হলে তিনিও কার্ড করিয়ে রাখতে চান। 

ঘটনাপ্রবাহে মুচকি হাসি তৃণমূল নেতাদের মুখে। সৌগত রায় বলেন, দিলীপ ঘোষের বয়স বাড়ছে। এবার স্বাস্থ্যের দিকে নজর দিতে হবে। তাই তাড়াতাড়ি কার্ড করে নিন, উপকার পাবেন। কার্ড হয়ে গেলে মমতা ব্যানার্জিকে ধন্যবাদ জানাতে যেন ভুলবেন না, সংযোজন বর্ষীয়ান তৃণমূল সাংসদের।

Comments
Loading...