নভেম্বরের শুরুতেই শীতের আমেজ, দু’দিনের মধ্যে রাজ্যে হাল্কা ঠান্ডার পূর্বাভাস! দিল্লিতে অক্টোবরে ২৬ বছরে রেকর্ড ঠান্ডা

অন্যান্য বছর কালীপুজোর পর থেকেই ভালো ঠান্ডা পড়তে শুরু করে। কিন্তু এইবারে শীত যেন বেশ কিছুটা এগিয়ে এসেছে। নভেম্বর মাসের একদম শুরু থেকেই বেশ শীতের আমেজ উপভোগ করতে শুরু করেছেন রাজ্যবাসী। আলিপুর আবহাওয়া অফিস জানাচ্ছে, হাঁড়কাপানো না হলেও, রাজ্যে ঠান্ডা পড়বে দু’দিনের মধ্যেই।

এদিকে এখনই বেশ খানিকটা শীতের আমেজ পাওয়া যাচ্ছে রাত্রে ও ভোরের দিকে। রাজধানী দিল্লি তার গত ২৬ বছরের রেকর্ড ভেঙে ফেলেছে।  অক্টোবর মাসের ২৯ তারিখ দিল্লির তাপমাত্রা ছিল ১২.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এখনও পর্যন্ত ১৯৩৭ সালের ৩১ অক্টোবর দিল্লিতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ৯.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এখন নভেম্বরে তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রিতে নেমে এসেছে।

 

দেশের অন্যান্য জায়গাতেও শীতের বেশ প্রভাব লক্ষ্য করা গেছে। হিমাচল প্রদেশের লাহুল-স্পিটিতে তুষারপাত শুরু হয়েছে। কাইলং অঞ্চলে তুষারপাতের কারণে বরফের চাদর জমি থেকে প্রায় 8 ইঞ্চি বেড়েছে। পুণে থেকে শুরু করে দেহরাদুনের তাপমাত্রা ১৪.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস লক্ষ্য করা গেছে। জম্মু-কাশ্মীর ও শ্রীনগরের তাপমাত্রা শূন্য ডিগ্রিতে নেমেছে। ইতিমধ্যেই উঁচু পাহাড়ি অঞ্চলের হিল স্টেশনগুলির সৌন্দর্য বৃদ্ধি পেয়েছে। হাওয়া অফিস বলছে, অন্যান্যবারের তুলনায় এবারের শীত বেশ ভালই জমজমাটি হবে।

 

Comments
Loading...