রাজ্য স্বাস্থ্য কমিশন স্বতঃপ্রণোদিত মামলা শুরু করল ডিসান হাসপাতালের বিরুদ্ধে। করোনা সংক্রমিতকে ভর্তি নিয়ে টালবাহানার প্রেক্ষিতে এই প্রথম স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে মামলা শুরু হল।

গোলমালের সূত্রপাত সোমবার রাতে। সেদিন তমলুকের বাসিন্দা লায়লা বিবিকে বাইপাসের ধারে ডিসান হাসপাতালে ভর্তি করাতে আনেন তাঁর ছেলে। তিনি করোনা পজিটিভ ছিলেন। অভিযোগ, ইমার্জেন্সির সামনে দাঁড়িয়ে থাকা অ্যাম্বুলেন্স থেকে নামিয়ে লায়লা বিবিকে হাসপাতালে ঢোকানো হয়নি স্রেফ চাহিদা মতো টাকা না মেলায়। লায়লা বিবির ছেলে নগদে ৮০ হাজার জমা দেন। কিন্তু অভিযোগ, আরও ২ লক্ষ টাকা জমা না করলে ভর্তি করা যাবে না বলে সাফ জানানো হয় হাসপাতালের তরফে। মাকে বাঁচাতে কোনওরকমে সেই টাকারও ব্যবস্থা করে ফেলেন ছেলে। শেষপর্যন্ত ২ লক্ষ টাকা ব্যাঙ্ক ট্রান্সফারের রসিদ দেখালে মন গলে ডিসান কর্তৃপক্ষের। কিন্তু অ্যাম্বুলেন্সে গিয়ে দেখা যায় মৃত্যু হয়েছে লায়লা বিবির।

সোমবার রাতের এই ঘটনায় কলকাতার বেসরকারি হাসপাতালগুলোকে নিয়ে বড়সড় প্রশ্ন উঠে যায়। সেই সমস্যা সমাধানে এবার এগিয়ে এল রাজ্যের স্বাস্থ্য কমিশন। বুধবার সংবাদপত্রের রিপোর্টের ভিত্তিতে স্বতঃপ্রণোদিতভাবে মামলা রুজু করেন কমিশনের চেয়ারপার্সন অসীম ব্যানার্জি।

ডিসান হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অবশ্য শুরু থেকেই দাবি করছে, যখন রোগীকে হাসপাতালে আনা হয় তখন আর কিছু করার ছিল না। টাকা নিয়ে গোলমালের অভিযোগ ভিত্তিহীন।

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Support us