পিএম কেয়ারস ফান্ডে ৩৫ হাজার টাকা ও মোবাইলে আরোগ্য সেতু অ্যাপ, বিজেপি নেতার জামিনে শর্ত ঝাড়খণ্ড হাইকোর্টের

পিএম কেয়ারস তহবিলে প্রত্যেককে দান করতে হবে ৩৫ হাজার টাকা এবং নিজের মোবাইলে ডাউনলোড করতে হবে আরোগ্য সেতু অ্যাপ। এই শর্ত মানলে তবেই মিলবে জামিন।

বিজেপির প্রাক্তন সাংসদ সহ পাঁচজনের জামিন দিতে গিয়ে এমনই শর্ত আরোপ করল ঝাড়খণ্ড হাইকোর্ট।

জানা গিয়েছে, ২০১২ সালে ঝাড়খণ্ডের পাকুড়ে ‘রেল রোকো’ বিক্ষোভে অংশ নেওয়ায় প্রাক্তন বিজেপি সাংসদ সোম মারান্ডি সহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়। সম্প্রতি সেই মামলার রায়ে রেলওয়ে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তাঁদের একবছরের কারাদণ্ড দেন।

রেলের এই সাজা ঘোষণার পর বিজেপির প্রাক্তন সাংসদ সোম মারান্ডি, বিবেকানন্দ তিওয়ারি, অমিত আগরওয়াল, হিজাবি রাই, সঞ্চয় বর্ধন ও অনুগ্রহপ্রসাদ শাহ নিম্ন আদালতে পাল্টা মামলা করেন। কিন্তু সেখানেও তাঁদের আবেদন খারিজ হওয়ার পর ঝাড়খণ্ড হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন তাঁরা।

সেই মামলার রায়ে মারান্ডি সহ পাঁচজনকে শর্তসাপেক্ষে জামিন দেয় ঝাড়খণ্ড হাইকোর্ট। আর আদালতের দেওয়া শর্তগুলি অভিনব।

বিচারপতি অনুভা রাওয়াত চৌধুরী কোর্ট অর্ডারে লেখেন, সংশ্লিষ্ট মামলার প্রত্যেককে প্রাইম মিনিস্টার্স সিটিজেনস অ্যাসিস্ট্যান্স অ্যান্ড রিলিফ ইন এমার্জেন্সি সিচুয়েশনস বা PM CARES ফান্ডে ৩৫ হাজার টাকা করে দান করতে হবে। শুধু তাই নয়, জেল হেফাজত থেকে জামিনে মুক্তির সঙ্গে সঙ্গে পাঁচ অভিযুক্তকে মোবাইল ফোনে ডাউনলোড করতে হবে আরোগ্য সেতু অ্যাপ। যে অ্যাপে দেশে করোনা পজিটিভ কেসের তথ্য, আশপাশের অঞ্চলে আক্রান্তের সংখ্যা, তথ্য ইত্যাদি জানা যাচ্ছে। শর্ত মানলে তবেই মিলবে জামিন।

রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকার করোনা মোকাবিলায় যে নির্দেশ দিয়েছে তা পুঙ্খানুপুঙ্খ মেনে চলতে হবে বলেও জানিয়েছে ঝাড়খণ্ড হাইকোর্ট। পাঁচ অভিযুক্তকে বলা হয়েছে, করোনা মোকাবিলায় পিএম কেয়ারস ফান্ডে টাকা জমা দেওয়ার রসিদ এবং ফোনে আরোগ্য সেতু অ্যাপ ডাউনলোড করা হয়েছে কি না, তা আদালতে দেখাতে হবে।

 

Comments
Loading...