‘কঙ্গনা দেশদ্রোহী, ওর পদ্মশ্রী পুরস্কার কেড়ে নেওয়া হোক’! কঙ্গনা রানাউতের ‘ভারতের স্বাধীনতা ভিক্ষা করে পাওয়া’ মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করল মহিলা কমিশন, রাষ্ট্রপতিকে চিঠি দিলো মহিলা কমিশন

বরাবরই বিতর্কের শীর্ষে থাকতে পছন্দ করেন বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত। তবে এবার ভারতের স্বাধীনতা সম্পর্কে বেফাঁস মন্তব্য করে প্রায় সমস্ত রাজনৈতিক দলের সমালোচনার শিকার হতে হয়েছে তাকে। প্রসঙ্গত সম্প্রতি অভিনেত্রী জানিয়েছিলেন ১৯৪৭ সালে ভারতের স্বাধীনতা আসলে ভিক্ষা করে পাওয়া। ভারত স্বাধীন হয়েছে 2014 সালে, এমনটাই মনে করেন তিনি। তার এই মন্তব্যের পর রীতিমতো চাঞ্চল্য পড়ে গিয়েছিল রাজনৈতিক মহলে।

এর আগে কংগ্রেস সহ একাধিক রাজনৈতিক দল তার মন্তব্যের বিরোধিতা করে তার তীব্র সমালোচনা করেছিল। এবার রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে চিঠি দিয়ে কঙ্গনা রানাউতের পদ্মশ্রী পুরস্কার কেড়ে নেওয়ার আর্জি জানানো জাতীয় মহিলা কমিশন।

কমিশন প্রধান স্বাতী মালিওয়াল এদিন রাষ্ট্রপতিকে পাঠানো একটি চিঠিতে জানিয়েছেন যে কঙ্গনা মোটেও মজার ছলে এধরনের মন্তব্য করেননি। বরং তিনি বরাবরই ভারতের মানুষদের মধ্যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করার চেষ্টা করে থাকেন। পাশাপাশি এ ধরনের মন্তব্য করে তিনি ভগৎ সিং, নেতাজি থেকে শুরু করে সমস্ত স্বাধীনতা সংগ্রামীদের অসম্মান করেছেন, এমনটাই মত মহিলা কমিশনের।

কঙ্গনাকে ‘দেশদ্রোহী’ বলে সম্বোধন করে কমিশন প্রধান জানিয়েছেন অভিনেত্রীর এখনই উচিত গোটা দেশের মানুষের কাছে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়া। তবে এই গোটা বিতর্ক নিয়ে এখনো প্রকাশ্যে মুখ খোলেনি কঙ্গনা নিজে।

Comments are closed.