কেন্দ্রের কথা মতো সাজাদ লোনকে মুখ্যমন্ত্রী না করায় তাঁকে সরানো হতে পারে, মন্তব্য জম্মু-কাশ্মীরের রাজ্যপালের

শনিবার জম্মু-কাশ্মীরের রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক মন্তব্য করেছিলেন, তিনি চাননি কেন্দ্রের কথা মতো সাজাদ লোনকে মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসাতে। একারণেই বিধানসভা ভাঙার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। পিডিপি-ন্যাশনাল কনফারেন্স জোট সরকার গড়তে ‘সিরিয়াস’ ছিল না বলেও দাবি করেন রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক। তিনি বলেছিলেন, তাঁর এই সিদ্ধান্ত সমালোচিত হবে জেনেও তিনি বিধানসভা ভাঙেন। তিনি নিজের কাছে পরিষ্কার ছিলেন বলে দাবি করেন সত্যপাল।
মঙ্গলবার জম্মুতে এক অনুষ্ঠানে গিয়ে রাজ্যপাল বলেন, তাঁর সিদ্ধান্তের জন্য তাঁকে জম্মু-কাশ্মীরের দায়িত্ব থেকে সরানো হতে পারে। যদিও জম্মু-কাশ্মীরের রাজ্যপালের দায়িত্ব পালন করতে তাঁর নিজের কোনওরকম অসুবিধা নেই বলেও স্পষ্ট জানান তিনি। রাজ্যপালের এই বক্তব্য বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।
বিধানসভা ভাঙার পরে মালিক নাম না করে অভিযোগ করেছিলেন, বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির মধ্যে ঘোড়া কেনাবেচা ও আর্থিক লেনদেন হয়েছে। তাঁর এই বক্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করেছিলেন ওমর আবদুল্লা। বিরোধী দলগুলি দাবি করে, সত্যপালের সিদ্ধান্তের পেছনে হাত ছিল বিজেপি সরকারের।
অন্যদিকে, সাজাদ লোন তাঁকে কেন্দ্র করে রাজ্যপালের উক্তির তীব্র সমালোচনা করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, দেশের মিডিয়ার সামনে সত্যপালের ওই বক্তব্য অপমানজনক। সারা কাশ্মীরকে দুর্নীতিগ্রস্ত হিসেবে তুলে ধরতে চাইছেন রাজ্যপাল।

Comments
Loading...