সাহায্যের নাম করে এটিএম প্রতারণা, শিয়ালদহ স্টেশনে পুলিশের জালে গয়া গ্যাংয়ের ২ দুষ্কৃতী

নিরক্ষর মানুষদের সাহায্য করার নামে এটিএম জালিয়াতির অভিযোগে গ্রেফতার ভিন রাজ্যের দুই দুষ্কৃতী। উদ্ধার হল নকল এটিএম কার্ড, স্কিমিং ডিভাইস, ম্যাগনেটিক স্ট্রাইপ রিডার রাইটার (এমএসআরডব্লিউ) ও একটি ল্যাপটপ।
বেশ কিছুদিন ধরে যাদবপুর সহ কলকাতার বেশ কিছু জায়গার এটিএম কাউন্টার থেকে টাকা উধাও হয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠছে। এই পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শিয়ালদহ স্টেশন থেকে দুই সন্দেহভাজনকে পাকড়াও করল কলকাতা পুলিশ।
লালবাজার সূত্রে খবর, মুদ্দাসর খান ও ইরফানুদ্দিন নামে বিহারের গয়া জেলার দুই বাসিন্দা শহরে একাধিক এটিএম জালিয়াতির সঙ্গে যুক্ত। তাদের লক্ষ্য ছিল নিরক্ষর অথবা এটিএম কার্ডে টাকা তুলতে সড়গড় নন এমন ব্যক্তিরা। এটিএম থেকে টাকা তুলে দেওয়ার নামে কার্ড থেকে তথ্য চুরি করা হত স্কিমিং ডিভাইসের মাধ্যমে। এরপর মুহূর্তের মধ্যে ওই মানুষদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে লোপাট হয়ে যেত হাজার হাজার টাকা। এইভাবে বেশ কিছুদিন ধরে এটিএম জালিয়াতি করে আসছে ওই দুই দুষ্কৃতী। কলকাতার যাদবপুর ও তিলজলাতে ঘাঁটি গেড়েছিল গয়ার বাসিন্দা মুদ্দাসর ও ইরফানুদ্দিন।
বৃহস্পতিবার রাতে দার্জিলিং মেল ধরার জন্য শিয়ালদহ স্টেশনে উপস্থিত হয় মুদ্দাসর ও ইরফানুদ্দিন। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে কলকাতা পুলিশের একটি দল সেখানে আগে থেকেই উপস্থিত ছিল। প্রথমে তাদেরকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে পুলিশ। অভিযুক্তদের বয়ানে একাধিক অসঙ্গতি ধরা পড়ে। এরপরেই অভিযুক্তদের পুলিশ গ্রেফতার করে। ধৃতদের কাছ থেকে ৩৮ টি নকল এটিএম কার্ড উদ্ধার হয়। যেখানে বিভিন্ন এটিএম ব্যবহারকারীর তথ্য চুরি করে রাখা হয়েছে। এছাড়া ম্যাগনেটিক স্ট্রাইপ রিডার রাইটার (এমএসআরডব্লিউ), স্কিমিং ডিভাইস ও একটি ল্যাপটপও বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ। ধৃতদের সঙ্গে বড় কোনও এটিএম জালিয়াতি চক্রের যোগ রয়েছে কি না, তার তদন্ত চলছে।

 

Comments
Loading...