মমতা: দিল্লি বিজেপির নির্দেশে বদলে যাচ্ছে ওপিনিয়ন পোল! তৃণমূলের ২১১ আসনকে দেখানো হবে ১৫৮

তৃণমূল ২১১ আসন পাবে, বিজেপি ৫১, সেই ওপিনিয়ন পোল পাল্টে ফেলা হবে, অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রীর

বিজেপির চোখরাঙানিতে পাল্টে ফেলা হচ্ছে প্রাক-ভোট সমীক্ষা! সোমবার নন্দীগ্রামের সভায় দাঁড়িয়ে এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ করলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জি। বিজেপিকে নিশানা করে মমতার মন্তব্য, সংবাদমাধ্যমকে ভয় দেখিয়ে জনমানসের অভিব্যক্তি চেপে রাখতে পারবেন না।

ঠিক কী অভিযোগ করেছেন মমতা?

এদিন পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রামের সভা থেকে মমতা বলেন, ‘আমি জানি কতগুলো সার্ভে ভোটের আগে তৈরি হচ্ছে। সেই সার্ভে উল্টে দিচ্ছে, আমার কাছে খবর আছে।’ তৃণমূল নেত্রী যোগ করেন, কেউ কেউ সার্ভে রিপোর্ট দেখাবে আজকালের মধ্যে। সার্ভে হয়েছে একরকম, কিন্তু তাকে ভয় দেখিয়ে উল্টে দিচ্ছে বিজেপি। তৃণমূল ২১১ পেয়েছে, লেখা হচ্ছে ১৫৮। তৃণমূল নেত্রীর আরও অভিযোগ, বিজেপি ৫১ পেয়েছে, সেখানে বলা হচ্ছে ৯২ বা ১০২ দেখাও! দিল্লির বিজেপি নেতাদের অঙ্গুলিহেলনেই বদলে দেওয়া হচ্ছে প্রাক-ভোট সমীক্ষা। আর সংবাদমাধ্যম ভয়ে চুপ করে আছে, দাবি মুখ্যমন্ত্রীর। সংশ্লিষ্ট সংবাদমাধ্যগুলির উদ্দেশে মমতার মন্তব্য, ‘আর কতদিন ভয় পাবেন? কাগজ কিন্তু বেরিয়ে যায়। প্রমাণ ঢেকে রাখা যায় না।’

সেই সঙ্গে বিজেপিকে নিশানা করে মমতার তোপ, ‘আপনি একটা সংবাদমাধ্যমকে ভয় দেখিয়ে জনমানসের অভিব্যক্তি চেপে রাখতে পারেন না। সংবাদপত্রে যা ইচ্ছে লিখতে পারেন, আপনার স্বাধীনতা আছে। সংবাদ চ্যানেল সার্ভে রিপোর্ট উল্টো করে দিয়ে দেখাচ্ছেন, দেখান, কোনও যায় আসে না। আসল সার্ভে রিপোর্ট তো বলে দিলাম।’ এরপর মমতা বলেন, একটা সার্ভে হয়েছে, তাতে বলা হয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস ২১১ আসন পাবে। বিজেপি ৫১ পাবে। বাদবাকি আসন অন্যান্যরা পাবে। সেই রিপোর্ট আজ ঘুরিয়ে দিয়ে দেখাবে, তৃণমূল ১৫৮ পাবে। বিজেপি পাবে ৯২টি সিট। তৃণমূল নেত্রীর তোপ, ‘আমি সব জানি। ভেতরকার গেম প্ল্যান।

এখানেই থামেননি মমতা। তাঁর কটাক্ষ, ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের আগে পুলওয়ামার গেম প্ল্যান কীভাবে তৈরি হয়েছিল? জনতার উদ্দেশে তাঁর আবেদন, সব ভিডিওয় বিশ্বাস করবেন না। সব হোয়াটসঅ্যাপ বিশ্বাস করবেন না। সব ফেক। এসব নাটক তৈরি করে মানুষকে বিশ্বাস করানো হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন তৃণমূল নেত্রী। তাঁর কটাক্ষ, বিজেপি হাজার হাজার কোটি টাকা খরচ করে কুৎসা রটায়, মিথ্যে ছড়ায়, অপপ্রচার করে। যেমন ছেলেধরা ছেলেধরা চিৎকার করলে ‘আসল’ ছেলেধরা পালিয়ে যায়, তেমনি এরা মিথ্যা বলে, কুৎসা করে। এরপর বিজেপি আইটি সেলকে নিশানা করেন তৃণমূল নেত্রী। তাঁর কটাক্ষ, ‘ওদের কতগুলো মালপোয়া আছে দানাদারের গ্রুপ আছে। তারা নাকি আইটি করে! টাকা দিয়ে সাদাকে কালো কালোকে সাদা করে।’

Comments
Loading...