গুজরাতে জলের লাইন সংযোগ করাতে লাগবে আধার, প্রস্তাব পাশ বিধানসভায়

বাড়িতে জলের লাইনের সংযোগ করতে হলেও লাগবে আধার কার্ড, গুজরাত বিধানসভায় বৃহস্পতিবার এমন সিদ্ধান্তের কথা জানাল বিজেপি সরকার। জানানো হয়, যাঁদের বাড়িতে পাইপ লাইনের মাধ্যমে জলের সংযোগ করানো রয়েছে এবং নতুন যাঁরা জলের কানেকশন নেবেন, উভয়কেই আধার তথ্য জমা দিতে হবে। পাশাপাশি গুজরাতের গ্রামাঞ্চলে এতদিন বাড়ি প্রতি ৫৫ লিটার করে জল সরবরাহ করা হত, এবার তা বাড়িয়ে ১০০ লিটার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে গুজরাত সরকার।
পরে ‘দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস’-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে গুজরাতের জল সরবরাহ বিভাগের মন্ত্রী কুনভার্জিভাই বাভালিয়া জানান, আগামী কয়েক মাসের মধ্যে রাজ্যের পাইপ লাইনের মাধ্যমে জল সংযোগ করাতে হলে বাসিন্দাদের আধার নম্বর দিতেই হবে। তবে তার আগে গুজরাতের জল সরবরাহ দফতর যে বিপুল পাইপ লাইন সংস্কারের কাজ করছে তা আগে শেষ করতে চায় সরকার। এ সব কাজ শেষ হলেই জলের সংযোগের জন্য আধার নম্বর সংযুক্ত করার কাজ শুরু করা হবে।
জল সংযোগের জন্য আধার কার্ড যোগ করতে একটি সঙ্কল্প নেওয়ার প্রস্তাব দেন গুজরাতের করঞ্জের বিজেপি বিধায়ক প্রবীনভাই ঘোঘারি। পানীয় জলের সংকটে ভোগা মোদী-রাজ্যে সমস্যা সমাধানে সরকার যে ‘জল সঞ্চয় অভিযান’ প্রকল্প করেছে তা সফল করতে এই সঙ্কল্প নেওয়ার প্রস্তাব দেন ওই বিধায়ক। তাঁর প্রস্তাব, উদ্দেশ্য পূরণ করতে সরকার সঙ্কল্প নিক রাজ্যের প্রত্যেকটি জল সংযোগের জন্য আধার সংযুক্তিকরণ করতেই হবে। এরপর বৃহস্পতিবার সর্বসম্মতভাবে সেই প্রস্তাব পাশও হয়ে যায় গুজরাত বিধানসভায়।
জল সরবরাহ বিভাগের মন্ত্রী বিধানসভায় জানান, মোদী সরকারের ‘জল জীবন মিশন’-এর আওতায় ১৩ হাজার ৩০০ টি গ্রাম এবং ২০৩ টি শহুরে এলাকায় জল সরবরাহ করা সম্ভব হয়েছে। ২০২৪ সালের মধ্যে গুজরাতের সব বাড়িতে পানীয় জলের অভাব দূর করবে সরকার। এই প্রকল্পের জন্য চলতি বাজেটে ৭২৪ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে বলে জানান তিনি।
Comments
Loading...