উত্তর দিনাজপুর জেলার ভোট ষষ্ঠ দফায়, ১৬ ও ১৯ নির্বাচনের ফলাফল কী?

উত্তর দিনাজপুর জেলায় ৯টি আসন। এই সবকটি আসনেই ভোট ষষ্ঠ দফায়। এই আসনগুলি চোপড়া, ইসলামপুর, গোয়ালপোখর, চাকুলিয়া, করণদিঘি, হেমতাবাদ, কালিয়াগঞ্জ, রায়গঞ্জ এবং ইটাহার।

দেখে নেওয়া যাক এই কেন্দ্রগুলিতে ১৬ আর ১৯ লোকসভা ভোটের ফলাফল কী ছিল?

২০১৬ সালে চোপড়া বিধানসভায় জয় পান তৃণমূল প্রার্থী হামিদুল রহমান (৭৪,৩৯০)। সিপিএম প্রার্থী পান ৫৭৫৩০ ভোট। ২০১৯ সালে এই কেন্দ্রে তৃণমূল এগিয়ে ৪৪,৭৭৭ ভোটে। এই বিধানসভা কেন্দ্রটি দার্জিলিং লোকসভার অন্তর্গত।
এই কেন্দ্রে এবারের তৃণমূল প্রার্থী হলেন হামিদুল রহমান। এই আসনে বিজেপির তরফে দাঁড়াচ্ছেন মহম্মদ শাহিন আখতার। সিপিএম প্রার্থী আনওয়ারুল হক।

ইসলামপুরে ২০১৬ সালে জয় পেয়েছিলেন কংগ্রেসের কানাইয়ালাল আগরওয়াল। পরে তিনি দল বদলে তৃণমূলে চলে আসেন। লোকসভায় হাজার চারেক ভোটে এগিয়ে তৃণমূল।
এই কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী সৌমরূপ মণ্ডল। তৃণমূল প্রার্থী আবদুল করিম চৌধুরি। কংগ্রেস প্রার্থী সিদ্দিকুল ইসলাম।

গোয়ালপোখর বিধানসভায় ২০১৬ সালে জয়লাভ করেছিলেন তৃণমূলের গোলাম রব্বানি (৬৪,৮৬৯)। দ্বিতীয় কংগ্রেস। ২০১৯ সালের লোকসভার ফল বলছে এই কেন্দ্রে এগিয়ে তৃণমূল।
এই কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী মহঃ গুলাম সরওয়ার। মহঃ গুলাম রব্বানি তৃণমূল প্রার্থী। মহঃ নাসিম আহসেন কংগ্রেস প্রার্থী।

চাকুলিয়া বিধানসভায় ২০১৬ সালে জেতেন ফরওয়ার্ড ব্লকের আলি ইমরান রামজ (৬৪,১৮৫)। বিজেপি ও তৃণমূল, দুই দলই ৩৬ হাজার করে ভোটে পেয়েছিল। ২০১৯ সালে এই কেন্দ্রে এগিয়ে তৃণমূল।
এই কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী শচীন প্রসাদ। তৃণমূল প্রার্থী আজাদ মিনহাজুল আফরিন। ফরওয়ার্ড ব্লকের প্রার্থী আলি ইমরান।

২০১৬ সালের বিধানসভায় করণদিঘি কেন্দ্রে জিতেছিলেন তৃণমূলের মনদেব সিনহা (৫৪,৫৯৯)। ২০১৯ সালের ফল বলছে এই কেন্দ্রে এগিয়ে বিজেপি।
এবার তৃণমূল প্রার্থী করেছে গৌতম পালকে। বিজেপি প্রার্থী সুভাষচন্দ্র সিংহ। ফরওয়ার্ড ব্লক প্রার্থী মহঃ হাফিজুল ইকবাল।

গত বিধানসভা ভোটে হেমতাবাদ আসনে সিপিএমের দেবেন্দ্রনাথ রায় জেতেন ১৩,১৩৬ ভোটে। ২০১৯ সালের লোকসভায় এগিয়ে গিয়েছে বিজেপি।
এই কেন্দ্রে এবার তৃণমূল প্রার্থী সত্যজিৎ বর্মণ। সিপিএম প্রার্থী ভূপেন বর্মণ। চন্দিমা রায় বিজেপি প্রার্থী।

কালিয়াগঞ্জ আসনে ২০১৬ এর ভোটে কংগ্রেসের প্রমথনাথ রায় জিতলেও পরে তাঁর মৃত্যুতে উপ নির্বাচনে জয় পায় তৃণমূল। লোকসভায় ৫৬৫৬২ ভোটের লিড ছিল বিজেপির। কিন্তু উপ নির্বাচনে তৃণমূল সেই লিড ছাপিয়ে বড়ো জয় পায়।
এই কেন্দ্রে এবার বিজেপি প্রার্থী সৌমেন রায়। তৃণমূল প্রার্থী তপন দেব সিংহ। কংগ্রেস প্রার্থী প্রভাস সরকার।

রায়গঞ্জ আসনে ২০১৬ সালে জিতেছিলেন কংগ্রেসের মোহিত সেনগুপ্ত। ২০১৯ সালে ৪০ হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে গেছে বিজেপি।
এবার তৃণমূল প্রার্থী কানাইয়ালাল আগরওয়াল। মোহিত সেনগুপ্ত কংগ্রেস প্রার্থী। বিজেপি প্রার্থী কৃষ্ণ কল্যাণী।

২০১৬ সালে ইটাহার আসনে তৃণমূলের অমল আচার্য (৮৮,৫০৭) , সিপিআইয়ের শ্রীকুমার মুখার্জি পান ৬৯৩৮৭ ভোট। ২০১৯ সালে ইটাহারে এগিয়ে তৃণমূল।
একুশের ভোটে এই কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী মোশারফ হোসেন। বিজেপির হয়ে লড়ছেন অমিত কুমার কুণ্ডু। সিপিআই প্রার্থী শ্রীকুমার মুখার্জি।

Comments
Loading...