মালিয়া, নীরব মোদী, মেহুল চোকসিদের ঋণ মকুব হচ্ছে, কৃষকদের নয়, মধ্যপ্রদেশের সভায় প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ রাহুলের

কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার ১০ দিনের মধ্যে সমস্ত কৃষকের ঋণ মুকুব করা হবে। মধ্যপ্রদেশের বিদিশার সভা থেকে শুক্রবার ঘোষণা করলেন রাহুল গান্ধী। মধ্যপ্রদেশে নির্বাচনী জনসভায় স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ করেন কংগ্রেস সভাপতি। রাহুল অভিযোগ করেন, মোদী সরকার মোট ৩.৫ লাখ কোটি টাকা ঋণ মুকুব করেছেন। তবে আক্ষেপের বিষয়, তাতে কোনও কৃষকের নাম নেই!
রাহুল বলেন, ‘বিজয় মাল্য ১০ হাজার কোটি টাকা নিয়ে দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন, হাজার হাজার কোটি টাকা নিয়ে দেশ ছেড়েছেন মেহুল চোকসি, নীরব মোদীরা। তাঁদের ঋণ মুকুব করা যায়। কিন্তু কৃষকের ঋণ মাপ করতেই মোদী সরকারের যত আপত্তি।’ মোদী সরকারের আমলে কৃষকের জীবন-যাত্রার কোনও উন্নতি হয়নি বলেও অভিযোগ রাহুলের। আর এই প্রসঙ্গ নিয়ে যখনই তিনি নরেন্দ্র মোদীকে প্রশ্ন করেছেন, তখনই মোদীজী চুপ থেকেছেন বলে তোপ রাহুলের।
সভায় উপস্থিত জনতাকে নিজের হাতের দশ আঙুল দেখিয়ে রাহুলের প্রতিশ্রুতি, ক্ষমতায় আসার ঠিক ১০ দিনের মধ্যে কৃষকদের ঋণ মুকুব করবে কংগ্রেস। প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহে ছত্তিশগড় সভা থেকেও একই প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী।
এদিনের সভা থেকে ফের রাফাল প্রসঙ্গ নিয়ে চাঁচাছোলা ভাষায় বিজেপি সরকারের দিকে আক্রমণ শানান তিনি। মোদী ৩০ হাজার কোটি টাকা অনিল আম্বানির ‘পকেটে ভরে দিয়েছেন’ বলেও রাহুলের অভিযোগ। তিনি দাবি করেন, যুদ্ধ বিমান তৈরি করার পারদর্শিতা না থাকা স্বত্ত্বেও আম্বানির কোম্পানিকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ফাইটার জেট তৈরি করতে। আর রাফাল দুর্নীতির নিরপেক্ষ তদন্ত হলে শুধু দুটো নাম উঠে আসবে – এক, নরেন্দ্র মোদী আর দুই, অনিল আম্বানির।
আগামী ২৮ শে নভেম্বর মধ্যপ্রদেশে ভোট। তার ঠিক কয়েকদিন আগে, বিদিশার সভা থেকে বিজেপিকে হঠিয়ে কংগ্রেস সরকার প্রতিষ্ঠা করার ডাক দিলেন রাহুল গান্ধী।

Comments
Loading...