মহম্মদ সেলিমের ছেলে রাসেল আজিজকে জেরা ভবানীভবনে, প্রতিহিংসার অভিযোগ সিপিএম সাংসদের

পঞ্চায়েত ভোটের দিন ফেসবুকে বিভ্রান্তিমূলক পোস্ট করার মামলায় সিপিএম সাংসদ মহম্মদ সেলিমের ছেলে রাসেল আজিজকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠাল সিআইডি। সোমবার বিকেলে রাসেলকে ভবানীভবনে ডেকে পাঠানো হয়। এর আগে তাঁকে দুবার ডেকে পাঠিয়েছিল সিআইডি। কিন্তু অন্য কাজে ব্যস্ত থাকার জন্য তিনি হাজিরা দিতে পারেননি। নিজেই সোমবার, ২১ মে সময় চেয়েছিলেন গোয়েন্দাদের কাছে।

রাসেল আজিজ

পঞ্চায়েত ভোটের দিন দুপুরে রাসেল আজিজ তাঁর ফেসবুক পেজে লিখেছিলেন, ‘উত্তর দিনাজপুরে এক প্রিসাইডিং অফিসার খুন হয়েছেন।’ এরপর তিনি অবশ্য লেখেন, এই খবরটি আনভেরিফায়েড। কিন্তু প্রশাসন জানায়, এমন কোনও ঘটনাই ওখানে ঘটেনি। যেহেতু মহম্মদ সেলিম উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জের সাংসদ, রাসেল এই পোস্ট করার পরই তা ওই জেলাজুড়ে ছড়িয়ে যায়। কিছুক্ষণ বাদে রাসেল এই পোস্টটি ডিলিটও করে দেন। পরদিনই সল্টলেক সাইবার ক্রাইম থানায় মহম্মদ সেলিমের ছেলের নামে মামলা দায়ের করে সিআইডি। কোনও বিভ্রান্তিমূলক বিষয় লেখা বা তা প্রকাশ করার জন্য এলাকায় শান্তি বিঘ্নিত হতে পারে, এই অভিযোগেই কেস করা হয়েছে মহম্মদ সেলিমের ছেলের বিরুদ্ধে।

সূত্রের খবর এদিন গোয়েন্দারা রাসেলের কাছে জানতে চান, কেন ভোটের দিন তিনি ওই পোস্ট করেছিলেন? রাসেল জানান, কোনও উদ্দেশ্য তাঁর ছিল না। গুজব শুনেই তিনি ওই পোস্ট করেন। সিআইডি জানিয়েছে, দরকারে তাঁকে ফের ডাকা হবে। এদিকে, তাঁর ছেলেকে সমনের ঘটনায় সরকারকে তীব্র আক্রমণ করেছেন মহম্মদ সেলিম। তাঁর অভিযোগ, সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই এই ঘটনা ঘটাচ্ছে। রাজ্যে বহু সিপিএম কর্মীকে মিথ্যে মামলায় ফাঁসানো হচ্ছে। তাঁরা আইনি লড়াই লড়বেন।

Comments
Loading...