শুভেচ্ছা জানিয়ে পোস্টার, রাজনীতিতে আসছেন সাধন পাণ্ডের কন্যা শ্রেয়া?

মন্ত্রী সাধন পান্ডে কন্যা কি এবার রাজনীতিতে? বেশকিছু পোস্টার এবং ফ্লেক্স ঘিরে শুরু হয়েছে জল্পনা। মঙ্গলবার সকাল থেকে বসিরহাটে একাধিক জায়গায় ছেয়ে গিয়েছে সাধন তনয়া শ্রেয়ার বেশকিছু পোস্টার, ব্যানার এবং ফ্লেক্স। যা নিয়ে শ্রেয়ার রাজনীতিতে যোগদান ঘিরে জল্পনা তুঙ্গে। যদিও রাজনীতিতে আসার বিষয়ে মুখে তুলুপ এঁটেছেন অভিনেত্রী তথা সমাজসেবী শ্রেয়া পান্ডে। এই মাসের শেষের দিকেই শুভ সংবাদ দেবেন তিনি বলে জানিয়েছেন।

সরস্বতী পুজোর দিন বসিরহাটের ইছামতী ঘোজাডাঙ্গা সীমান্ত সহ টাকি, ইটিন্ডা শরৎ বিশ্বাস রোডের বিভিন্ন জায়গায় পোস্টার দেখা যায়। সেই পোস্টারে দেখা যায় সরস্বতী পুজোর শুভেচ্ছা জানিয়েছেন শ্রেয়া।

সোমবার বসিরহাটে গিয়েছিলেন শ্রেয়া। সেখানে সংগ্রামপুরে প্রাচীন কালী মন্দিরে পুজো দেন তিনি। স্থানীয়দের সঙ্গে কথাও বলেন। স্থানীয়দের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, “ বসিরহাটে আমার জন্ম। বাবা মন্ত্রী হলেও এখানকার মানুষের সঙ্গে আমার অন্যরকম সম্পর্ক রয়েছে।” নিজেকে সমাজসেবী পরিচয় দিয়ে তিনি সাদারণ মানুষকে বার্তা দেন, “স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজে আমি সাধারণ মানুষের পাশে সবসময় আছি”। অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন, কি এমন হল যে, ভোটের আগে সমাজসেবী হিসেবে নিজের প্রচার করতে ব্যস্ত হয়েছেন শ্রেয়া।

[আরও পড়ুন- বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন প্রসেনজিত? ক্রমেই বাড়ছে জল্পনা]

বিধানসভা নির্বাচন দোরগোড়ায়। আর কয়েকদিন পরেই দিনক্ষণ ঘোষণা। এর মধ্যেই সরস্বতী পুজোর শুভেচ্ছা জানিয়ে বসিরহাট দক্ষিণের বিভিন্ন জায়গায় শ্রেয়ার পোস্টার ঘিরে স্বাভাবিকভাবেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। এমনকি ফুটবলার দীপেন্দু বিশ্বাসের বদলে সাধন তনয়াকে প্রার্থী করছে শাসকদল বলেও জল্পনা শুরু হয়।

অন্যদিকে বিজেপির বসিরহাট সাংগঠনিক জেলা সম্পাদক তাপস ঘোষ জানিয়েছেন, “সরস্বতী পুজোর শুভেচ্ছা জানিয়েছেন শ্রেয়া। উদ্বোধন করেছেন বেশকিছু পুজোর। ভোটের বাজারে তৃণমূলের প্রার্থী হওয়ার জন্য ঘোরাঘুরি করছেন। বিজেপির সঙ্গে ওনার কোনও যোগাযোগ নেই।

 

Comments
Loading...